ঢাকা ০৭:০০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদগঞ্জে পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউপি নির্বাচন; প্রথম ইভিএম ভোট শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন

এস এম ইকবাল : শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন হলো উপজেলার ৮নং পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন।

Model Hospital

উপজেলায় এই প্রথম ইভিএমে ভোট গ্রহণ হয়েছে। নতুন পদ্মতিতে ভোট দিতে ভয় আর শঙ্কা থাকলেও নিজের ভোট নিজে দিতে পেরে অনেক খুশি ভোটাররা। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত অবাধ নিরপেক্ষ এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ শেষ হয়। সকাল আটটায় শুরু হয়ে টানা ভোট চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। ৯ কেন্দ্রের কোথায়ও সামান্য বিশৃঙ্খলার ঘটনাও ঘটেনি। এমন নির্বাচন উপজেলায় বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

সকাল আটটায় ভোট শুরু হলেও বহু ভোটার সকাল সাতটার দিকে ভোট কেন্দ্রে হাজির হয়। প্রশাসনও ভোটের পরিবেশ সুন্দর রাখতে পরিশ্রম করেছেন, কোথায়ও জটলা বাঁধতে দেননি। এ সময় আনসার, পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি এবং র‌্যাবকেও কাজ করতে দেখা গেছে। ভয় ভীতি প্রদর্শন, জোর জবরদস্তি, ব্যালট চিনতাই, একজনের ভোট অন্যজন দিয়ে দেওয়া, রাতের আঁধারে ভোট দিয়ে দেওয়া, হামলা পাল্টা হামলাহীন এক নজিরবিহীন নির্বাচন দেখেছে উপজেলাবাসী।

সকাল সাড়ে আটটার সময় খুরুমখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে আমেনা বেগম নামের এক ভোটারকে হাসতে হাসতে বের হতে দেখা যায়। ভোট দিয়েছেন ? এমন প্রশ্ন করতেই তিনি জবাব দিলেন-‘হ্যাঁ বাবা দিয়েছি। অনেক বছর পর নিজের ভোট নিজে দিতে পেরেছি।’ ভোটারের খুশি দেখে মনে হচ্ছে তিনি রাজ্য জয় করেছেন। এ রকম দৃশ্য বাকী কেন্দ্রগুলোতেও দেখা গেছে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

স্কুলের শ্রেণিকক্ষে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় ছাত্রীসহ প্রধান শিক্ষক আটক

ফরিদগঞ্জে পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউপি নির্বাচন; প্রথম ইভিএম ভোট শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন

আপডেট সময় : ০১:০৫:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২

এস এম ইকবাল : শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন হলো উপজেলার ৮নং পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন।

Model Hospital

উপজেলায় এই প্রথম ইভিএমে ভোট গ্রহণ হয়েছে। নতুন পদ্মতিতে ভোট দিতে ভয় আর শঙ্কা থাকলেও নিজের ভোট নিজে দিতে পেরে অনেক খুশি ভোটাররা। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত অবাধ নিরপেক্ষ এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ শেষ হয়। সকাল আটটায় শুরু হয়ে টানা ভোট চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। ৯ কেন্দ্রের কোথায়ও সামান্য বিশৃঙ্খলার ঘটনাও ঘটেনি। এমন নির্বাচন উপজেলায় বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

সকাল আটটায় ভোট শুরু হলেও বহু ভোটার সকাল সাতটার দিকে ভোট কেন্দ্রে হাজির হয়। প্রশাসনও ভোটের পরিবেশ সুন্দর রাখতে পরিশ্রম করেছেন, কোথায়ও জটলা বাঁধতে দেননি। এ সময় আনসার, পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি এবং র‌্যাবকেও কাজ করতে দেখা গেছে। ভয় ভীতি প্রদর্শন, জোর জবরদস্তি, ব্যালট চিনতাই, একজনের ভোট অন্যজন দিয়ে দেওয়া, রাতের আঁধারে ভোট দিয়ে দেওয়া, হামলা পাল্টা হামলাহীন এক নজিরবিহীন নির্বাচন দেখেছে উপজেলাবাসী।

সকাল সাড়ে আটটার সময় খুরুমখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে আমেনা বেগম নামের এক ভোটারকে হাসতে হাসতে বের হতে দেখা যায়। ভোট দিয়েছেন ? এমন প্রশ্ন করতেই তিনি জবাব দিলেন-‘হ্যাঁ বাবা দিয়েছি। অনেক বছর পর নিজের ভোট নিজে দিতে পেরেছি।’ ভোটারের খুশি দেখে মনে হচ্ছে তিনি রাজ্য জয় করেছেন। এ রকম দৃশ্য বাকী কেন্দ্রগুলোতেও দেখা গেছে।