ঢাকা ০৭:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তিতে৫ টি বসত ঘর পুড়ে ভস্মীভূত, ক্ষতি ২৫ লক্ষ টাকা

মো. মাসুদ রানা : চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে বৈদ্যুতিক শর্টসার্টিকেটে ৫টি বসতঘর পুড়ে ভস্মীভূত হয়েছে।

Model Hospital

শনিবার দুপুরে উপজেলার সুচিপাড়া দক্ষিণ ইউপির ৩নং ওয়ার্ডের দিঘদাইর হাজের বাড়িতে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, ওই বাড়ির মৃত নুরুল ইসলামের পুত্র জাহাঙ্গীর আলম ৫৫ (ফল বিক্রেতার) ঘরের কোনো এক স্থান থেকে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিটে মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে আগুন।

এরপর মুহূর্তের মধ্যে একই বাড়ির মৃত হাবিবুল্লাহর পুত্র তাজুল ইসলাম ৭০( দারোয়ান), মৃত হাফিজ মিয়ার পুত্র দেলোয়ার হোসেন ৫৫ (দিনমজুর), শামসুল ইসলামের পুত্র রাশেদ ৩৫ (দিনমজুর), মৃত আব্দুস সালামের পুত্র শহিদুল্লাহ ৭৫ দিনমজুরের ঘরে আগুন ছড়িয়ে পড়ে ৫ টি বসত ঘর ও রান্নাঘর (রসাইঘর) মুহূর্তের মধ্যে ভস্মভূত হয়ে যায়।

অগ্নিকাণ্ডের ওই ভয়ংকর দৃশ্য দেখতে পেয়ে বাড়ির লোকজনের আত্মচিৎকার স্থানীয় সোহেল নামের এক যুবক ৯৯৯ এ ফোন দেয়। পরে শাহরাস্তি ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের লিডার রুবেল ত্রিপুরার নেতৃত্বে একদল ফায়ারম্যান স্থানীয়দের সহযোগিতায় চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

এ প্রসঙ্গে ফায়ার সার্ভিস লিডার ত্রিপুরা জানান, ওই পরিবারগুলোর প্রায় ৫ লাখ টাকার মূল্যের বিভিন্ন গৃহস্থালি সামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছে।

এ ছাড়া অবকাঠামো ও নগদ টাকাসহ ২৫ লক্ষ টাকার মালামাল ভস্মীভূত হয়।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মোরসালিন বাঙালি জানান, বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটে অগ্নিকাণ্ডে তাজুল ইসলাম ৩.৫ লক্ষ , জাহাঙ্গীরের ২ লক্ষ, দেলোয়ারের ৮০ হাজার, রাশেদ ৫৫ হাজার নগদ টাকা ঘরে রক্ষিত ও অবকাঠামো স্থাপনা সহ প্রায় ২৫ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন হয় ।

তিনি আরো বলেন পরিবারগুলি একদম অসহায় এবং অভাবী । সরকারি বেসরকারি প্রণোদনা না পেলে তাদের জীবনযাপন দুর্বিষহ হয়ে পড়বে।

ট্যাগস :

শাহরাস্তিতে৫ টি বসত ঘর পুড়ে ভস্মীভূত, ক্ষতি ২৫ লক্ষ টাকা

আপডেট সময় : ০১:১৮:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০২২

মো. মাসুদ রানা : চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে বৈদ্যুতিক শর্টসার্টিকেটে ৫টি বসতঘর পুড়ে ভস্মীভূত হয়েছে।

Model Hospital

শনিবার দুপুরে উপজেলার সুচিপাড়া দক্ষিণ ইউপির ৩নং ওয়ার্ডের দিঘদাইর হাজের বাড়িতে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, ওই বাড়ির মৃত নুরুল ইসলামের পুত্র জাহাঙ্গীর আলম ৫৫ (ফল বিক্রেতার) ঘরের কোনো এক স্থান থেকে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিটে মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে আগুন।

এরপর মুহূর্তের মধ্যে একই বাড়ির মৃত হাবিবুল্লাহর পুত্র তাজুল ইসলাম ৭০( দারোয়ান), মৃত হাফিজ মিয়ার পুত্র দেলোয়ার হোসেন ৫৫ (দিনমজুর), শামসুল ইসলামের পুত্র রাশেদ ৩৫ (দিনমজুর), মৃত আব্দুস সালামের পুত্র শহিদুল্লাহ ৭৫ দিনমজুরের ঘরে আগুন ছড়িয়ে পড়ে ৫ টি বসত ঘর ও রান্নাঘর (রসাইঘর) মুহূর্তের মধ্যে ভস্মভূত হয়ে যায়।

অগ্নিকাণ্ডের ওই ভয়ংকর দৃশ্য দেখতে পেয়ে বাড়ির লোকজনের আত্মচিৎকার স্থানীয় সোহেল নামের এক যুবক ৯৯৯ এ ফোন দেয়। পরে শাহরাস্তি ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের লিডার রুবেল ত্রিপুরার নেতৃত্বে একদল ফায়ারম্যান স্থানীয়দের সহযোগিতায় চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

এ প্রসঙ্গে ফায়ার সার্ভিস লিডার ত্রিপুরা জানান, ওই পরিবারগুলোর প্রায় ৫ লাখ টাকার মূল্যের বিভিন্ন গৃহস্থালি সামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছে।

এ ছাড়া অবকাঠামো ও নগদ টাকাসহ ২৫ লক্ষ টাকার মালামাল ভস্মীভূত হয়।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মোরসালিন বাঙালি জানান, বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটে অগ্নিকাণ্ডে তাজুল ইসলাম ৩.৫ লক্ষ , জাহাঙ্গীরের ২ লক্ষ, দেলোয়ারের ৮০ হাজার, রাশেদ ৫৫ হাজার নগদ টাকা ঘরে রক্ষিত ও অবকাঠামো স্থাপনা সহ প্রায় ২৫ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন হয় ।

তিনি আরো বলেন পরিবারগুলি একদম অসহায় এবং অভাবী । সরকারি বেসরকারি প্রণোদনা না পেলে তাদের জীবনযাপন দুর্বিষহ হয়ে পড়বে।