ঢাকা ০৭:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন ফরিদগঞ্জের সহযোগিতায় ঘর পেলো প্রতিবন্ধী রিপন

এস এম ইকবাল : ঘরে নেই বেড়া, চালের উপর পলিথিনের জোড়া। বর্ষায় বৃষ্টির পানি আর শীতে কুয়াশা। প্রকৃতির করুণায় হেলে না পড়া জরাজীর্ণ ঘরের মতোই রিপনের যাপিত জীবন। আর্থিক দৈন্যতার কারণে ঘরটি মেরামত করতে পারছিলো না। ৭০ বছরের বৃদ্ধা মাকে নিয়ে ছয় বছর ধরে মানবেতর জীবন যাপন করছে প্রতিবন্ধী আব্দুর রহমান রিপন (৩৬)।

Model Hospital

এসব চিত্র দেখে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন’ তাকে পুরাতন জরাজীর্ণ ঘরটি ভেঙ্গে তার পাশে একটি পরিপূর্ণ দুই রুমের টিনের ঘর তৈরি করে দেওয়ায়   অনেকটা সুখের হাসি হাসতে দেখা গেছে তাকে।

আব্দুর রহমান রিপনের বাড়ি ফরিদগঞ্জ উপজেলার ৭নং পাইকপাড়া উত্তর ইউনিয়নের কামালপুর গ্রামে। এক সময় রিপন সুস্থ ছিলো। অন্য দশজন তরুণের মতো সেও স্বপ্ন দেখতো। রঙিন স্বপ্ন। মাকে নিয়ে স্বপ্ন, নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে স্বপ্ন। এক দূর্ঘটনায় তার সেই স্বপ্ন নিমেষেই শেষ হয়ে যায়। রিপন একজন অটোরিক্সা চালক ছিলো। ২০১৬ সালে ঢাকায় এক সড়ক দূর্ঘটনায় রিপন মারাত্মকভাবে আহত হয়। দূর্ঘটনায় সে পুরোপুরি পঙ্গু হয়ে যায়। এখন সে অন্যের সহযোগিতা ছাড়া কিছুই করতে পারছে না। ঘর সংস্কার তো দূরের কথা তিন বেলা পেট ভরে খেতেই কষ্ট হচ্ছে তাদের। এই যখন অবস্থা তখনই দেবদূত হয়ে পাশে দাঁড়ায় ‘সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন’। আব্দুর রহমান রিপনকে সংগঠনের উদ্যোগে একটি ঘর করে দেয় তারা।

বিজয় মাসের প্রথম দিনেই গৃহহীন রিপনকে একটি ঘর উপহার দিয়ে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন ফরিদগঞ্জ।

১ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বিকালে আব্দুর রহমান রিপনের মা রহিমা বেগমের হাতে ঘরের চাবি তুলে দেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ হোসেন, সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন’র জেলা সভাপতি সাইফুল ইসলাম সিফাত, সাধারণ সম্পাদক ডা. মনিরুজ্জামান মহসিন, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক আবদুস সোবহান লিটন, অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও বর্তমান কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি এম. কে মানিক পাঠান। বিশিষ্ট কবি ও প্রকাশক কে এম নজরুল ইসলাম। ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সদস্য আবু তালেব, মো. জসীম উদ্দিন ও মেহেদী হাসান।

ঘর হস্তান্তরকালে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বলেন, “মানবতার স্পর্শে দূর হোক অন্ধকার” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশ সহ পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে মানবতার সেবায় কাজ করছেন সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন। রিপনকে ঘরটি করে দিতে সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশকে যারা আর্থিক, বুদ্ধি এবং সময় দিয়ে যারা সহযোগিতা করেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। ভবিষ্যতে এমন মানবিক কাজে সমাজের বৃত্তবানদের সহযোগিতা প্রত্যাশা করছি।’

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন ফরিদগঞ্জ শাখা কমিটির সভাপতি মো. শিমুল হাছান, সাধারণ সম্পাদক এস. এম ইকবাল, সিনিয়র সহ-সভাপতি নূরুল ইসলাম ফরহাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম, দপ্তর সম্পাদক পারভেজ মোশারফ প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, সেভ দ্য ফিউচারের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষা নিশ্চিত করা, প্রাকৃতিক ও মানবিক বিপর্যয় উত্তরনে কাজ করা, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় ভূমিকা রাখা, মূমুর্ষূ রোগীদের স্বেচ্ছায় রক্তদান, চিকিৎসা, বাসস্থান, খাদ্য সহায়তা, বস্ত্র, গৃহহীনদের ঘর নির্মাণ নিশ্চিত করা সহ আর্ত মানবতার সেবায় কাজ করছে।

ট্যাগস :

সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন ফরিদগঞ্জের সহযোগিতায় ঘর পেলো প্রতিবন্ধী রিপন

আপডেট সময় : ১০:২৮:৫৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০২২

এস এম ইকবাল : ঘরে নেই বেড়া, চালের উপর পলিথিনের জোড়া। বর্ষায় বৃষ্টির পানি আর শীতে কুয়াশা। প্রকৃতির করুণায় হেলে না পড়া জরাজীর্ণ ঘরের মতোই রিপনের যাপিত জীবন। আর্থিক দৈন্যতার কারণে ঘরটি মেরামত করতে পারছিলো না। ৭০ বছরের বৃদ্ধা মাকে নিয়ে ছয় বছর ধরে মানবেতর জীবন যাপন করছে প্রতিবন্ধী আব্দুর রহমান রিপন (৩৬)।

Model Hospital

এসব চিত্র দেখে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন’ তাকে পুরাতন জরাজীর্ণ ঘরটি ভেঙ্গে তার পাশে একটি পরিপূর্ণ দুই রুমের টিনের ঘর তৈরি করে দেওয়ায়   অনেকটা সুখের হাসি হাসতে দেখা গেছে তাকে।

আব্দুর রহমান রিপনের বাড়ি ফরিদগঞ্জ উপজেলার ৭নং পাইকপাড়া উত্তর ইউনিয়নের কামালপুর গ্রামে। এক সময় রিপন সুস্থ ছিলো। অন্য দশজন তরুণের মতো সেও স্বপ্ন দেখতো। রঙিন স্বপ্ন। মাকে নিয়ে স্বপ্ন, নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে স্বপ্ন। এক দূর্ঘটনায় তার সেই স্বপ্ন নিমেষেই শেষ হয়ে যায়। রিপন একজন অটোরিক্সা চালক ছিলো। ২০১৬ সালে ঢাকায় এক সড়ক দূর্ঘটনায় রিপন মারাত্মকভাবে আহত হয়। দূর্ঘটনায় সে পুরোপুরি পঙ্গু হয়ে যায়। এখন সে অন্যের সহযোগিতা ছাড়া কিছুই করতে পারছে না। ঘর সংস্কার তো দূরের কথা তিন বেলা পেট ভরে খেতেই কষ্ট হচ্ছে তাদের। এই যখন অবস্থা তখনই দেবদূত হয়ে পাশে দাঁড়ায় ‘সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন’। আব্দুর রহমান রিপনকে সংগঠনের উদ্যোগে একটি ঘর করে দেয় তারা।

বিজয় মাসের প্রথম দিনেই গৃহহীন রিপনকে একটি ঘর উপহার দিয়ে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন ফরিদগঞ্জ।

১ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বিকালে আব্দুর রহমান রিপনের মা রহিমা বেগমের হাতে ঘরের চাবি তুলে দেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ হোসেন, সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন’র জেলা সভাপতি সাইফুল ইসলাম সিফাত, সাধারণ সম্পাদক ডা. মনিরুজ্জামান মহসিন, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক আবদুস সোবহান লিটন, অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও বর্তমান কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি এম. কে মানিক পাঠান। বিশিষ্ট কবি ও প্রকাশক কে এম নজরুল ইসলাম। ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সদস্য আবু তালেব, মো. জসীম উদ্দিন ও মেহেদী হাসান।

ঘর হস্তান্তরকালে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বলেন, “মানবতার স্পর্শে দূর হোক অন্ধকার” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশ সহ পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে মানবতার সেবায় কাজ করছেন সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন। রিপনকে ঘরটি করে দিতে সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশকে যারা আর্থিক, বুদ্ধি এবং সময় দিয়ে যারা সহযোগিতা করেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। ভবিষ্যতে এমন মানবিক কাজে সমাজের বৃত্তবানদের সহযোগিতা প্রত্যাশা করছি।’

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন ফরিদগঞ্জ শাখা কমিটির সভাপতি মো. শিমুল হাছান, সাধারণ সম্পাদক এস. এম ইকবাল, সিনিয়র সহ-সভাপতি নূরুল ইসলাম ফরহাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম, দপ্তর সম্পাদক পারভেজ মোশারফ প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, সেভ দ্য ফিউচারের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষা নিশ্চিত করা, প্রাকৃতিক ও মানবিক বিপর্যয় উত্তরনে কাজ করা, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় ভূমিকা রাখা, মূমুর্ষূ রোগীদের স্বেচ্ছায় রক্তদান, চিকিৎসা, বাসস্থান, খাদ্য সহায়তা, বস্ত্র, গৃহহীনদের ঘর নির্মাণ নিশ্চিত করা সহ আর্ত মানবতার সেবায় কাজ করছে।