ঢাকা ০৫:১৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ঘোড়া মার্কার প্রার্থী অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমনের সংবাদ সম্মেলন

দোয়াত কলম মার্কা চেয়ারম্যান প্রার্থী পেশী শক্তি ও কালো টাকা ব্যবহার করছেন

চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দোয়াত কলম মার্কা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী পেশী শক্তি ও কালো টাকা ব্যবহার করার অভিযোগ করেছেন ঘোড়া মার্কার প্রার্থী অ্যাড হুমায়ুন কবির সুমন।

Model Hospital

গতকাল ১৯ মে মঙ্গলবার চাঁদপুর প্রেসক্লাবে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন বলেন, দোয়াত কলম প্রতীকের প্রার্থী সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর নাম, পদ ও মর্যাদা ব্যবহার করে ভোটারদের নিকট ভোট চাচ্ছেন এবং মন্ত্রী থেকে ভোটারদের স্বার্থ পাইয়ে দেয়ার প্রলোভন দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ঘোড়া প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী এ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন।

অভিযোগে হুমায়ুন কবির সুমন বলেন, আমি নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করার পর থেকে চাঁদপুর সদর উপজেলার জনগণের কাছ থেকে যে ভালোবাসা, আন্তরিকতা ও স্নেহ পেয়েছি তা আমার মত একজন ক্ষুদ্র রাজনৈতিক কর্মীর কাছে অনেক মূল্যবান। চাঁদপুর সদর উপজেলাবাসীর এই ভালোবাসা, আন্তরিকতা ও স্নেহ আমাকে উৎসাহিত ও অনুপ্রানিত করেছে।

চাঁদপুর সদর উপজেলাবাসীর আমার প্রতি এই উৎসাহ অনুপ্রেরণা দেখে আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী প্রতি হিংসা পরায়ণ হয়ে তার চিহ্নিত সন্ত্রাসী বাহিনী বিভিন্ন ইউনিয়ন ও পৌরসভায় আমার কর্মী ও সমর্থকদের প্রাণ নাসের হুমকি-ধমকি দিচ্ছে। আমার পোস্টার ও ব্যানার ছিঁড়ে ফেলে ক্ষতিসাধন করার পরেও আমি অবাধ সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন প্রত্যাশা করছি।

হুমায়ুন কবির সুমন বলেন, নির্বাচনী মনোনয়নপত্র দাখিল থেকে শুরু করে অদ্যাবধি সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর চাঁদপুর পৌরসভারধীন কদমতলাস্থ বাসভবন আমার প্রতিদ্বন্দী চেয়ারম্যান প্রার্থী (দোয়াত কলম) তার নির্বাচন পরিচালনার কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে ব্যবহার করে আসছেন। প্রত্যেক ও পরোক্ষভাবে তার প্রতি মন্ত্রীর সমর্থন আছে বলে ভোটারদের বিভ্রান্ত করে আসছেন।

ঘোড়া প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী হুমায়ুন কবির পৌরসভার মেয়র এর বিষয়ে অভিযোগ করে বলেন, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মহোদয় উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আচরণ বিধিমালা লংঘন করে প্রকাশ্যে আমার প্রতিদ্বন্দ্বী চেয়ারম্যান প্রার্থী দোয়াত কলম মার্কার পক্ষে তার সরকারি গাড়ি ব্যবহার করে ইউনিয়ন ও পৌরসভার ওয়ার্ডগুলোতে স্ব-শরীরে উপস্থিত হয়ে পৌরসভার ভোটারদের বিভিন্ন উন্নয়নের কথা বলে ভোট চাচ্ছেন।

যাহা নির্বাচন আচরণবিধির ২২(১)এর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। চাঁদপুর পৌরসভার UNDP কর্তৃক পরিচালিত দারিদ্র্য বিমোচন ও বস্তি উন্নয়ন (CDC) প্রকল্পের আওতাধীন সুবিধাভোগী ভোটারদেরকে দোয়াত কলম মার্কায় ভোট দেওয়ার জন্য হুমকি ধমকি দিচ্ছেন। UNDP এর পৌরসভার দায়িত্বে নিয়োজিত কর্মকর্তা ধারা সুবিধাবীদের আইডি কার্ড ও বিকাশ নম্বর সংগ্রহ করছেন এবং এ প্রকল্পের আওতাধীন দারিদ্র্য জনগোষ্ঠী যাদের বিকাশ অ্যাকাউন্ট নেই তাদেরকে বিকাশ একাউন্ট খুলে দিচ্ছেন। UNDP জাতিসংঘের আওতাধীন একটি সংস্থা, তাদেরকে মেয়র মহোদয় ব্যবহার করছেন যা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আচরণ বিধিমালা ২২(২) এর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

মেয়রের বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ করে হুমায়ুন কবির সুমন বলেন, আমার নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী দোয়াত কলম মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী মাননীয় মন্ত্রীর নাম ভাঙ্গিয়ে, মেয়র মহোদয় তার পদ পদবী ব্যবহার করে উন্নয়ন সহযোগী সংস্থাকে ব্যবহার করায়, ইহাতে প্রতীয়মান হয় যে, দোয়াত কলম মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী পেশী শক্তি ও কালো টাকা ব্যবহার করবেন। চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাচনে এলাকার বিভিন্ন ভাতাভীদের দোয়াত কলম মার্কায় ভোট প্রদানের জন্য চাপ প্রয়োগ করছেন, অন্যথায় ভাতাভোগীদের তাদের সুবিধা থেকে বঞ্চিত করবেন বলে হুমকি দিচ্ছেন। পৌরসভার মেয়র মহোদয় পৌরসভার কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দকে এবং পৌরসভা কর্তৃক পরিচালিত বিদ্যালয় গুলোর শিক্ষক এবং শিক্ষিকাগণকে দোয়াত কলম প্রতীকে চেয়ারম্যান প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী কাজ করার জন্য চাপ প্রয়োগ করছেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য হুমায়ুন কবির সুমন বলেন, নির্বাচন কার্য শুরু থেকে অদ্যবধি আমি সাংবাদিক ভাইদের অকুণ্ঠ সহযোগিতা পেয়ে আসছি। আমি সাংবাদিকদের প্রতি কৃতজ্ঞ। আপনারা আপনাদের লেখনীর মাধ্যমে একটি অবাধ, সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের দাবি করে আসছেন। তাহা আমি কৃতজ্ঞচিত্তে সমর্থন করি। আমার নির্বাচন প্রচারণা করতে গিয়ে আমি ভোটারদের মধ্যে যে উৎসাহ উদ্দীপনা ও স্বতঃস্ফূর্ততা দেখেছি তা যেন কোন বেশি শক্তি কালো টাকা ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের দ্বারা স্নান না হয়ে যায় সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখার জন্য আপনাদেরকে বিনীত অনুরোধ করছি।

চেয়ারম্যান প্রার্থী হুমায়ুন কবির সুমন রিটার্নিং অফিসার ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উদ্দেশ্যে বলেন, নির্বাচনী পরিচালনা কার্যে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের লক্ষ্যে যে সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন তা সত্যিই প্রশংসনীয়। আমি আপনাদের মাধ্যমে নির্বাচন পরিচালনায় দায়িত্বরত সকল কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি আবেদন করছি যে একটি সুষ্ঠু প্রশান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদের পদক্ষেপগুলো অব্যাহত থাকবে।  নির্বাচন পরিচালনার কাজে দায়িত্বরত কর্মকর্তা বৃন্দের নিকট নির্বাচনের দিন প্রত্যেক কেন্দ্রে পর্যাপ্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগের জন্য আমি আপনাদের মাধ্যমে জোর দাবি জানাচ্ছি।

পরিশেষে বলতে চাই, নির্বাচনে সকল প্রার্থীদের জন্য সমান সুযোগ ও সমান অধিকার বজায় রেখে চাঁদপুর সদর উপজেলাবাসীর জন্য একটি স্মরণীয় ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন উপহার দিবেন বলেই নির্বাচন কমিশনার প্রতি আমার বিশ্বাস।

গণতন্ত্রের প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে হলে অবাদ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অপরিহার্য, অবশ্যই গণতন্ত্রের বিজয় হবে বলে আমি বিশ্বাস করি ইনশাআল্লাহ।

চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি শাহাদাত হোসেন শান্তর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক রোটা. মাহবুবুর রহমান সুমনের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শহীদ পাটওয়ারী, জালাল চৌধুরী, শরীফ চৌধুরী, গিয়াসউদ্দিন মিলন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, সোহেল রুশদী ও আল ইমরান শোভন, টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক কাদের পলাশসহ জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিক, অনলাইন এবং টেলিভিশনের বিভিন্ন পর্যায়ের সাংবাদিকরা।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে মাদরাসাতু মুহাম্মদ সাঃ উদ্বোধন

ঘোড়া মার্কার প্রার্থী অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমনের সংবাদ সম্মেলন

দোয়াত কলম মার্কা চেয়ারম্যান প্রার্থী পেশী শক্তি ও কালো টাকা ব্যবহার করছেন

আপডেট সময় : ১০:৩৬:২৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দোয়াত কলম মার্কা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী পেশী শক্তি ও কালো টাকা ব্যবহার করার অভিযোগ করেছেন ঘোড়া মার্কার প্রার্থী অ্যাড হুমায়ুন কবির সুমন।

Model Hospital

গতকাল ১৯ মে মঙ্গলবার চাঁদপুর প্রেসক্লাবে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন বলেন, দোয়াত কলম প্রতীকের প্রার্থী সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর নাম, পদ ও মর্যাদা ব্যবহার করে ভোটারদের নিকট ভোট চাচ্ছেন এবং মন্ত্রী থেকে ভোটারদের স্বার্থ পাইয়ে দেয়ার প্রলোভন দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ঘোড়া প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী এ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন।

অভিযোগে হুমায়ুন কবির সুমন বলেন, আমি নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করার পর থেকে চাঁদপুর সদর উপজেলার জনগণের কাছ থেকে যে ভালোবাসা, আন্তরিকতা ও স্নেহ পেয়েছি তা আমার মত একজন ক্ষুদ্র রাজনৈতিক কর্মীর কাছে অনেক মূল্যবান। চাঁদপুর সদর উপজেলাবাসীর এই ভালোবাসা, আন্তরিকতা ও স্নেহ আমাকে উৎসাহিত ও অনুপ্রানিত করেছে।

চাঁদপুর সদর উপজেলাবাসীর আমার প্রতি এই উৎসাহ অনুপ্রেরণা দেখে আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী প্রতি হিংসা পরায়ণ হয়ে তার চিহ্নিত সন্ত্রাসী বাহিনী বিভিন্ন ইউনিয়ন ও পৌরসভায় আমার কর্মী ও সমর্থকদের প্রাণ নাসের হুমকি-ধমকি দিচ্ছে। আমার পোস্টার ও ব্যানার ছিঁড়ে ফেলে ক্ষতিসাধন করার পরেও আমি অবাধ সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন প্রত্যাশা করছি।

হুমায়ুন কবির সুমন বলেন, নির্বাচনী মনোনয়নপত্র দাখিল থেকে শুরু করে অদ্যাবধি সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর চাঁদপুর পৌরসভারধীন কদমতলাস্থ বাসভবন আমার প্রতিদ্বন্দী চেয়ারম্যান প্রার্থী (দোয়াত কলম) তার নির্বাচন পরিচালনার কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে ব্যবহার করে আসছেন। প্রত্যেক ও পরোক্ষভাবে তার প্রতি মন্ত্রীর সমর্থন আছে বলে ভোটারদের বিভ্রান্ত করে আসছেন।

ঘোড়া প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী হুমায়ুন কবির পৌরসভার মেয়র এর বিষয়ে অভিযোগ করে বলেন, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মহোদয় উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আচরণ বিধিমালা লংঘন করে প্রকাশ্যে আমার প্রতিদ্বন্দ্বী চেয়ারম্যান প্রার্থী দোয়াত কলম মার্কার পক্ষে তার সরকারি গাড়ি ব্যবহার করে ইউনিয়ন ও পৌরসভার ওয়ার্ডগুলোতে স্ব-শরীরে উপস্থিত হয়ে পৌরসভার ভোটারদের বিভিন্ন উন্নয়নের কথা বলে ভোট চাচ্ছেন।

যাহা নির্বাচন আচরণবিধির ২২(১)এর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। চাঁদপুর পৌরসভার UNDP কর্তৃক পরিচালিত দারিদ্র্য বিমোচন ও বস্তি উন্নয়ন (CDC) প্রকল্পের আওতাধীন সুবিধাভোগী ভোটারদেরকে দোয়াত কলম মার্কায় ভোট দেওয়ার জন্য হুমকি ধমকি দিচ্ছেন। UNDP এর পৌরসভার দায়িত্বে নিয়োজিত কর্মকর্তা ধারা সুবিধাবীদের আইডি কার্ড ও বিকাশ নম্বর সংগ্রহ করছেন এবং এ প্রকল্পের আওতাধীন দারিদ্র্য জনগোষ্ঠী যাদের বিকাশ অ্যাকাউন্ট নেই তাদেরকে বিকাশ একাউন্ট খুলে দিচ্ছেন। UNDP জাতিসংঘের আওতাধীন একটি সংস্থা, তাদেরকে মেয়র মহোদয় ব্যবহার করছেন যা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আচরণ বিধিমালা ২২(২) এর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

মেয়রের বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ করে হুমায়ুন কবির সুমন বলেন, আমার নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী দোয়াত কলম মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী মাননীয় মন্ত্রীর নাম ভাঙ্গিয়ে, মেয়র মহোদয় তার পদ পদবী ব্যবহার করে উন্নয়ন সহযোগী সংস্থাকে ব্যবহার করায়, ইহাতে প্রতীয়মান হয় যে, দোয়াত কলম মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী পেশী শক্তি ও কালো টাকা ব্যবহার করবেন। চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাচনে এলাকার বিভিন্ন ভাতাভীদের দোয়াত কলম মার্কায় ভোট প্রদানের জন্য চাপ প্রয়োগ করছেন, অন্যথায় ভাতাভোগীদের তাদের সুবিধা থেকে বঞ্চিত করবেন বলে হুমকি দিচ্ছেন। পৌরসভার মেয়র মহোদয় পৌরসভার কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দকে এবং পৌরসভা কর্তৃক পরিচালিত বিদ্যালয় গুলোর শিক্ষক এবং শিক্ষিকাগণকে দোয়াত কলম প্রতীকে চেয়ারম্যান প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী কাজ করার জন্য চাপ প্রয়োগ করছেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য হুমায়ুন কবির সুমন বলেন, নির্বাচন কার্য শুরু থেকে অদ্যবধি আমি সাংবাদিক ভাইদের অকুণ্ঠ সহযোগিতা পেয়ে আসছি। আমি সাংবাদিকদের প্রতি কৃতজ্ঞ। আপনারা আপনাদের লেখনীর মাধ্যমে একটি অবাধ, সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের দাবি করে আসছেন। তাহা আমি কৃতজ্ঞচিত্তে সমর্থন করি। আমার নির্বাচন প্রচারণা করতে গিয়ে আমি ভোটারদের মধ্যে যে উৎসাহ উদ্দীপনা ও স্বতঃস্ফূর্ততা দেখেছি তা যেন কোন বেশি শক্তি কালো টাকা ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের দ্বারা স্নান না হয়ে যায় সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখার জন্য আপনাদেরকে বিনীত অনুরোধ করছি।

চেয়ারম্যান প্রার্থী হুমায়ুন কবির সুমন রিটার্নিং অফিসার ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উদ্দেশ্যে বলেন, নির্বাচনী পরিচালনা কার্যে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের লক্ষ্যে যে সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন তা সত্যিই প্রশংসনীয়। আমি আপনাদের মাধ্যমে নির্বাচন পরিচালনায় দায়িত্বরত সকল কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি আবেদন করছি যে একটি সুষ্ঠু প্রশান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদের পদক্ষেপগুলো অব্যাহত থাকবে।  নির্বাচন পরিচালনার কাজে দায়িত্বরত কর্মকর্তা বৃন্দের নিকট নির্বাচনের দিন প্রত্যেক কেন্দ্রে পর্যাপ্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগের জন্য আমি আপনাদের মাধ্যমে জোর দাবি জানাচ্ছি।

পরিশেষে বলতে চাই, নির্বাচনে সকল প্রার্থীদের জন্য সমান সুযোগ ও সমান অধিকার বজায় রেখে চাঁদপুর সদর উপজেলাবাসীর জন্য একটি স্মরণীয় ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন উপহার দিবেন বলেই নির্বাচন কমিশনার প্রতি আমার বিশ্বাস।

গণতন্ত্রের প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে হলে অবাদ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অপরিহার্য, অবশ্যই গণতন্ত্রের বিজয় হবে বলে আমি বিশ্বাস করি ইনশাআল্লাহ।

চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি শাহাদাত হোসেন শান্তর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক রোটা. মাহবুবুর রহমান সুমনের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শহীদ পাটওয়ারী, জালাল চৌধুরী, শরীফ চৌধুরী, গিয়াসউদ্দিন মিলন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, সোহেল রুশদী ও আল ইমরান শোভন, টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক কাদের পলাশসহ জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিক, অনলাইন এবং টেলিভিশনের বিভিন্ন পর্যায়ের সাংবাদিকরা।