ঢাকা ০৬:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মতলব উত্তরে পূর্ব শত্রুতার জেরে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা ॥ গ্রেপ্তার ৩

মনিরুল ইসলাম মনির: মতলব উত্তর উপজেলার ফতেপুর পশ্চিম ইউনিয়নের ফৈলাকান্দি গ্রামে এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিবেশীরা।

Model Hospital

৩১ জানুয়ারী মঙ্গলবার ভোরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। জানা গেছে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের ছেলে মো. মহিউদ্দিন খান বাদী হয়ে ফৈলাকান্দি গ্রামের মান্নান খান (৬০), ছেলে আল-আমিন (৩৩), আহম্মদ খান (২৬), সোহাগ খান, স্ত্রী সাজেদা বেগম’সহ ৫জন ও অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে মতলব উত্তর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এদিকে ঘটনার পরে মান্নান খান, তার ছেলে আল-আমিন ও আহম্মদ হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বাদী মো. মহিউদ্দিন বলেন, তাদের সাথে আমাদের অনেক আগে জমি সংক্রান্ত বিরোধ ছিল। গত ৭/৮ মাসে তা সমাধান হয়ে গেছে। এরপর থেকে তারা প্রায়ই হুমকি দিতো। আজকে আমার বাবা ফজরের নামাজ পড়ে বাড়িতে আসার সময় একা পেয়ে অনেক মারধর করেছে। ডাক-চিৎকার শুনে আমি গিয়ে দেখি আমার বাবাকে তারা লাঠি দিয়ে পিটাচ্ছে। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাই।

নিহতের স্ত্রী আরোজা বেগম জানান, সকালে তিনি নামাজ পড়ে কোরআন শরীফ তেলোয়াত করছিলেন। চিৎকার শুনে বাড়ির সামনের রাস্তায় গিয়ে দেখেন তার স্বামীকে লাঠি ও ইটপাটকেল দিয়ে মারছে। ঘটনাস্থলেই তার স্বামীকে মেরেছে বলে তার দাবী।

সাদ্দাম, রাবেয়া সহ কযয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, মান্নান খান ও তার তিন ছেলেরা আবদুস শুক্কুর খানকে গুরুত্বর মারপিট করে। তার ডাকচিৎকার শুনে সবাই দৌড়ে আসে। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

মতলব উত্তর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মহিউদ্দিন বলেন, এ ঘটনায় হত্যা মামলা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসলে ঘটনার সত্যতা জানা যাবে।

ছবি-০৩

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

স্কুলের শ্রেণিকক্ষে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় ছাত্রীসহ প্রধান শিক্ষক আটক

মতলব উত্তরে পূর্ব শত্রুতার জেরে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা ॥ গ্রেপ্তার ৩

আপডেট সময় : ০৫:১৫:৫৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩

মনিরুল ইসলাম মনির: মতলব উত্তর উপজেলার ফতেপুর পশ্চিম ইউনিয়নের ফৈলাকান্দি গ্রামে এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিবেশীরা।

Model Hospital

৩১ জানুয়ারী মঙ্গলবার ভোরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। জানা গেছে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের ছেলে মো. মহিউদ্দিন খান বাদী হয়ে ফৈলাকান্দি গ্রামের মান্নান খান (৬০), ছেলে আল-আমিন (৩৩), আহম্মদ খান (২৬), সোহাগ খান, স্ত্রী সাজেদা বেগম’সহ ৫জন ও অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে মতলব উত্তর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এদিকে ঘটনার পরে মান্নান খান, তার ছেলে আল-আমিন ও আহম্মদ হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বাদী মো. মহিউদ্দিন বলেন, তাদের সাথে আমাদের অনেক আগে জমি সংক্রান্ত বিরোধ ছিল। গত ৭/৮ মাসে তা সমাধান হয়ে গেছে। এরপর থেকে তারা প্রায়ই হুমকি দিতো। আজকে আমার বাবা ফজরের নামাজ পড়ে বাড়িতে আসার সময় একা পেয়ে অনেক মারধর করেছে। ডাক-চিৎকার শুনে আমি গিয়ে দেখি আমার বাবাকে তারা লাঠি দিয়ে পিটাচ্ছে। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাই।

নিহতের স্ত্রী আরোজা বেগম জানান, সকালে তিনি নামাজ পড়ে কোরআন শরীফ তেলোয়াত করছিলেন। চিৎকার শুনে বাড়ির সামনের রাস্তায় গিয়ে দেখেন তার স্বামীকে লাঠি ও ইটপাটকেল দিয়ে মারছে। ঘটনাস্থলেই তার স্বামীকে মেরেছে বলে তার দাবী।

সাদ্দাম, রাবেয়া সহ কযয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, মান্নান খান ও তার তিন ছেলেরা আবদুস শুক্কুর খানকে গুরুত্বর মারপিট করে। তার ডাকচিৎকার শুনে সবাই দৌড়ে আসে। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

মতলব উত্তর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মহিউদ্দিন বলেন, এ ঘটনায় হত্যা মামলা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসলে ঘটনার সত্যতা জানা যাবে।

ছবি-০৩