ঢাকা ০৮:৪৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মতলব দক্ষিণে ছেলের মারধরে বৃদ্ধা মা হাসপাতালে

মোজাম্মেল প্রধান হাসিব : চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণে ছেলের মারধরে বৃদ্ধা মা গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে ১৩ নভেম্বর বিকালে মতলব পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের ঢাকিরগাঁও বকাউল বাড়িতে।
হাসপাতাল ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত ১৩ নভেম্বর সকালে মতলব পৌরসভার ঢাকিরগাঁও বকাউল বাড়ির মৃত সাহেব আলী বকাউলের স্ত্রী আশাবি বেগম (৭০) তার পত্রিক সম্পত্তিতে ঘর তুলতে গেলে বাধা দেয় তার ছেলে জিয়াউর রহমান জিয়া। পরে পুলিশ এনে ঘর নির্মাণ কাজ বন্ধ দেয় জিয়া। ওই দিন বিকালে জিয়াউর রহমান জিয়া ও তার স্বজন লিটন মৃধা দলবল নিয়ে একই স্থানে ঘর তোলতে গেলে তার মা আশাবি বেগম এসে বাধা প্রধান করলে জিয়া তার আপন বৃদ্ধা মাকে মারধর করতে থাকে। এ সময় তার ডাকচিৎকারে মেয়ে লাকী বেগম (৫৫) আকলীমা (৪৫) তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী শাহনাজ (২৯) ও সিয়াম (১৪) তাফসির (১৩) আশাবি বেগমকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে তাদেরকেও মারধর করেন তারা ।
পরে তাদের ডাকচিৎকারে আশেপাশের লোকজন এসে আহতদের উদ্ধার করে মতলব দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে আশাবি বেগমকে কর্মরত চিকিৎসক ভর্তি দেন এবং অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেন।
এ ঘটনায় মতলব দক্ষিণ থানায় উভয় পক্ষ লিখিত অভিযোগ করেছেন।
এ বিষয়ে আহত আশাবি বেগমের ছেলে সোহেল বলেন, গত দুইমাস আগে আমার মায়ের কাছ থেকে জোরপূর্বক জায়গা লিখে নেয়। এ বিষয়ে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। আজকের ঘটনার সময় আমি কেএফটি স্কুলে ডিউটি করছিলাম। খবর পেয়ে এসে শোনতে পাই আমার আপন ভাই ও তার স্বজন লিটন মৃধা দলবল নিয়ে এসে জোরপূর্বক ঘর নির্মাণ করতে চাইলে আমার মা বাধা দিলে তারা মারধর করে ।
অভিযুক্ত জিয়াউর রহমান জিয়া বলেন, সকালে আমার মা আমার জায়গায় ঘর নির্মাণ করতে এলে আমি থানায় অভিযোগ করি। পরে পুলিশ এসে নির্মাণাধীন ঘরের কাজ বন্ধ করে দেয় ।
এ বিষয়ে মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইদুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় উভয় পক্ষ থানায় অভিযোগ করেছেন। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।
ট্যাগস :

মতলব দক্ষিণে ছেলের মারধরে বৃদ্ধা মা হাসপাতালে

আপডেট সময় : ০৪:২১:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৩ নভেম্বর ২০২২
মোজাম্মেল প্রধান হাসিব : চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণে ছেলের মারধরে বৃদ্ধা মা গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে ১৩ নভেম্বর বিকালে মতলব পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের ঢাকিরগাঁও বকাউল বাড়িতে।
হাসপাতাল ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত ১৩ নভেম্বর সকালে মতলব পৌরসভার ঢাকিরগাঁও বকাউল বাড়ির মৃত সাহেব আলী বকাউলের স্ত্রী আশাবি বেগম (৭০) তার পত্রিক সম্পত্তিতে ঘর তুলতে গেলে বাধা দেয় তার ছেলে জিয়াউর রহমান জিয়া। পরে পুলিশ এনে ঘর নির্মাণ কাজ বন্ধ দেয় জিয়া। ওই দিন বিকালে জিয়াউর রহমান জিয়া ও তার স্বজন লিটন মৃধা দলবল নিয়ে একই স্থানে ঘর তোলতে গেলে তার মা আশাবি বেগম এসে বাধা প্রধান করলে জিয়া তার আপন বৃদ্ধা মাকে মারধর করতে থাকে। এ সময় তার ডাকচিৎকারে মেয়ে লাকী বেগম (৫৫) আকলীমা (৪৫) তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী শাহনাজ (২৯) ও সিয়াম (১৪) তাফসির (১৩) আশাবি বেগমকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে তাদেরকেও মারধর করেন তারা ।
পরে তাদের ডাকচিৎকারে আশেপাশের লোকজন এসে আহতদের উদ্ধার করে মতলব দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে আশাবি বেগমকে কর্মরত চিকিৎসক ভর্তি দেন এবং অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেন।
এ ঘটনায় মতলব দক্ষিণ থানায় উভয় পক্ষ লিখিত অভিযোগ করেছেন।
এ বিষয়ে আহত আশাবি বেগমের ছেলে সোহেল বলেন, গত দুইমাস আগে আমার মায়ের কাছ থেকে জোরপূর্বক জায়গা লিখে নেয়। এ বিষয়ে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। আজকের ঘটনার সময় আমি কেএফটি স্কুলে ডিউটি করছিলাম। খবর পেয়ে এসে শোনতে পাই আমার আপন ভাই ও তার স্বজন লিটন মৃধা দলবল নিয়ে এসে জোরপূর্বক ঘর নির্মাণ করতে চাইলে আমার মা বাধা দিলে তারা মারধর করে ।
অভিযুক্ত জিয়াউর রহমান জিয়া বলেন, সকালে আমার মা আমার জায়গায় ঘর নির্মাণ করতে এলে আমি থানায় অভিযোগ করি। পরে পুলিশ এসে নির্মাণাধীন ঘরের কাজ বন্ধ করে দেয় ।
এ বিষয়ে মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইদুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় উভয় পক্ষ থানায় অভিযোগ করেছেন। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।