ঢাকা ০৭:১৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদগঞ্জে চলাচলের রাস্তায় বাঁশের বেড়া, বিপাকে কয়েকটি পরিবার

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি : চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে সাধারণ মানুষের চলাচলের রাস্তায় বেড়া দেওয়ায় চরম ভোগান্তির মুখে পড়েছের কয়েকটি পরিবারের লোকজন।
উপজেলার পাইকপাড়া উত্তর ইউনিয়নের ভাওয়াল গ্রামের পাটওয়ারী বাড়িতে পূর্বশক্রতার জেরে চলাচলের রাস্তায় বেড়া দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে একই বাড়ির মো. এমদাদুল ইসলাম কিরন, মো. শরীফ হোসেন ও ইমান হোসেনের বিরুদ্ধে
এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা যায়, মোস্তফা ভূঁইয়া গংদের সাথে একই বাড়ির  মো. এমদাদুল ইসলাম কিরন, মো. শরীফ হোসেন, ইমান হোসেন গংদের জায়গা জমি ও বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। সে আলোকে শত্রুতা পোষণ করে বুধবার ২৬ অক্টোবর সকালে দেশীয় অস্রের ভয় দেখিয়ে কিরন, শরীফ ও ইমামসহ কয়েক জন মিলে মোস্তফা ভূঁইয়াসহ কয়েকটি পরিবারের চলাচলের রাস্তায় বাঁশ দিয়ে বেড়া দিয়ে দেয়।
এ বিষয়ে প্রতিবেশী কয়েকজন বলেন, মোস্তফা ভূঁইয়াসহ কয়েকটি পরিবারের চলাচলের একমাত্র  রাস্তায় কিরন, শরীফ ও ইমানসহ কয়েকজন মিলে দেশীয় অস্ত্রের মুখে জোর পূর্বক বাঁশের বেড়া দিয়ে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে।
এ বিষয়ে মোস্তফা ভূঁইয়া জানান, মৃত- জামাল পাটওয়ারীর ছেলে এমদাদুল ইসলাম কিরন, হানিফ পাটওয়ারীর ছেলে শরীফ হোসেন ও মৃত- হোসেন পাটওয়ারীর ইমান হোসেনসহ কয়েকজন মিলে কয়েকটি পরিবারের চলাচলের রাস্তা দেশীয় অস্ত্রের মুখে জোর পূর্বক বাঁশের দিয়ে তা বন্ধ করে দিয়েছে।
তিনি আরো বলেন, আমাদের চলাচলের এই রাস্তায় তারা প্রতিনিয়ত মাদকদ্রব্য সেবন করতো, তাতে বাঁধা দেওয়ায় তারা আমাদের কয়েকটি পরিবারের চলাচলের রাস্তায় বাঁশ দিয়ে বেড়া দিয়ে দেয় এবং কিরন, শরীফ ও ইমান এলার চিহ্নত মাদক ব্যবসায়ী এবং সেবনকারী।
এ বিষয়ে সংবাদ কর্মীরা কিরন, শরীফ, ইমানকে জিজ্ঞেস করলে তারা সংবাদ কর্মীদের সাথে অশোভন আচরন করে এবং তাদের সামনেই মোস্তফা ভূঁইয়া গংদের মারতে তেড়ে আসে।
এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার উপ- পুলিশ পরিদর্শক আব্দুল কুদ্দুস জানান, আমরা লিখিত অভিযোগের আলোকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি এবং তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
ট্যাগস :

ফরিদগঞ্জে চলাচলের রাস্তায় বাঁশের বেড়া, বিপাকে কয়েকটি পরিবার

আপডেট সময় : ০৩:৫৩:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ অক্টোবর ২০২২
ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি : চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে সাধারণ মানুষের চলাচলের রাস্তায় বেড়া দেওয়ায় চরম ভোগান্তির মুখে পড়েছের কয়েকটি পরিবারের লোকজন।
উপজেলার পাইকপাড়া উত্তর ইউনিয়নের ভাওয়াল গ্রামের পাটওয়ারী বাড়িতে পূর্বশক্রতার জেরে চলাচলের রাস্তায় বেড়া দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে একই বাড়ির মো. এমদাদুল ইসলাম কিরন, মো. শরীফ হোসেন ও ইমান হোসেনের বিরুদ্ধে
এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা যায়, মোস্তফা ভূঁইয়া গংদের সাথে একই বাড়ির  মো. এমদাদুল ইসলাম কিরন, মো. শরীফ হোসেন, ইমান হোসেন গংদের জায়গা জমি ও বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। সে আলোকে শত্রুতা পোষণ করে বুধবার ২৬ অক্টোবর সকালে দেশীয় অস্রের ভয় দেখিয়ে কিরন, শরীফ ও ইমামসহ কয়েক জন মিলে মোস্তফা ভূঁইয়াসহ কয়েকটি পরিবারের চলাচলের রাস্তায় বাঁশ দিয়ে বেড়া দিয়ে দেয়।
এ বিষয়ে প্রতিবেশী কয়েকজন বলেন, মোস্তফা ভূঁইয়াসহ কয়েকটি পরিবারের চলাচলের একমাত্র  রাস্তায় কিরন, শরীফ ও ইমানসহ কয়েকজন মিলে দেশীয় অস্ত্রের মুখে জোর পূর্বক বাঁশের বেড়া দিয়ে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে।
এ বিষয়ে মোস্তফা ভূঁইয়া জানান, মৃত- জামাল পাটওয়ারীর ছেলে এমদাদুল ইসলাম কিরন, হানিফ পাটওয়ারীর ছেলে শরীফ হোসেন ও মৃত- হোসেন পাটওয়ারীর ইমান হোসেনসহ কয়েকজন মিলে কয়েকটি পরিবারের চলাচলের রাস্তা দেশীয় অস্ত্রের মুখে জোর পূর্বক বাঁশের দিয়ে তা বন্ধ করে দিয়েছে।
তিনি আরো বলেন, আমাদের চলাচলের এই রাস্তায় তারা প্রতিনিয়ত মাদকদ্রব্য সেবন করতো, তাতে বাঁধা দেওয়ায় তারা আমাদের কয়েকটি পরিবারের চলাচলের রাস্তায় বাঁশ দিয়ে বেড়া দিয়ে দেয় এবং কিরন, শরীফ ও ইমান এলার চিহ্নত মাদক ব্যবসায়ী এবং সেবনকারী।
এ বিষয়ে সংবাদ কর্মীরা কিরন, শরীফ, ইমানকে জিজ্ঞেস করলে তারা সংবাদ কর্মীদের সাথে অশোভন আচরন করে এবং তাদের সামনেই মোস্তফা ভূঁইয়া গংদের মারতে তেড়ে আসে।
এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার উপ- পুলিশ পরিদর্শক আব্দুল কুদ্দুস জানান, আমরা লিখিত অভিযোগের আলোকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি এবং তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।