ঢাকা ০৬:২২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মতলব দক্ষিণে জোরপূর্বক জায়গা দখলের চেষ্টা, হামলায় আহত ৭

মোজাম্মেল প্রধান হাসিব : মতলব দক্ষিণে জোরপূর্বক জায়গা দখল করতে প্রতিপক্ষের উপর হামলা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ হামলার ঘটনায় আহত হয়েছেন সাতজন। গত ১৩ মার্চ দুপুর দুইটার দিকে মতলব দক্ষিণ উপজেলার নায়েরগাঁও দক্ষিণ ইউনিয়নের আধারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

Model Hospital

জানা যায়, উপজেলার নায়েরগাঁও দক্ষিণ ইউনিয়নের আধারা গ্রামের মৃত সাবিদ আলীর ছেলে রফিকুল ইসলাম সওদাগর পৈত্রিক ও খরিদ সূত্রে মালিক হয়ে বাড়িঘর নির্মাণ করে গত প্রায় ৩৫ বছর যাবত বসবাস করে আসছেন। গত ২ বছর আগে রফিকুল ইসলাম সওদাগরের বড় ভাই মমিন সওদাগরের মেয়ে নাছিমা খাতুন পাশর্^বর্তী বাসিন্দা আমির হোসেন সওদাগরের ছেলে কামাল সওদাগর গংদের কাছে প্রতারণা করে ভূয়া চৌহদ্দি দিয়ে রফিকুল ইসলাম সওদাগরের তপশীলোক্ত বসতভিটা বিক্রি করে দেন। এরপর থেকেই কামাল গং জোরপূর্বক উক্ত জায়গা দখলের চেষ্টা চালায়।

এরই জের ধরে গত ১৩ মার্চ দুপুরে কামাল গংদের পক্ষ নিয়ে তার শ^শুর নায়েরগাঁও এলাকার চান মিয়া সওদাগরের ছেলে আব্দুল মালেক সওদাগরের নেতৃত্বে আধারা গ্রামের আমির হোসেন সওদাগরের ছেলে কামাল সওদাগর, জামাল সওদাগর, গাজি মিয়ার ছেলে আমির হোসেন, আমির হোসেনের স্ত্রী আফিয়া খাতুনসহ ৩০/৩৫ জনের একটি সন্ত্রাসীদল দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে জোরপূর্বক রফিক সওদাগরের জায়গা দখলের চেষ্টা চালায়ি তাদের উপর হামলা করে। হামলায় রফিকুল ইসলাম সওদাগর, তার ভাগিনা খলিল সওদাগর, স্ত্রী শেফালী বেগম, খলিলের মেয়ে সালমা আক্তার, খলিলের ভাইয়ের স্ত্রী জুলিয়া আক্তার, আলমগীর সওদাগরের স্ত্রী রুমকিসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়।

পরে রফিক সওদাগরের স্ত্রী শেফালী বেগম ৯৯৯ নম্বরে কল দিলে মতলব দক্ষিণ থানা পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

আহতদের ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা এসে আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতাল ও ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় মো. খলিল সওদাগরকে মতলব দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হয়েছে।

আহত রফিকুল ইসলাম জানান, আমার পৈত্রিক ও খরিদকৃত জায়গা কামাল গংরা জোরপূর্বক দখল করতে চায়। এরই জের ধরে তারা দলবল নিয়ে আমাদের উপর হামলা চালায়। আমি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এ ঘটনায় রফিকুল ইসলাম সওদাগরের স্ত্রী শেফালী বেগম বাদী হয়ে মতলব দক্ষিণ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

মতলব দক্ষিণ থানার এএসআই আব্দুল মতিন জানান, অভিযোগ পেয়ে এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

মতলব দক্ষিণে জোরপূর্বক জায়গা দখলের চেষ্টা, হামলায় আহত ৭

আপডেট সময় : ০১:১০:৫৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৬ মার্চ ২০২২

মোজাম্মেল প্রধান হাসিব : মতলব দক্ষিণে জোরপূর্বক জায়গা দখল করতে প্রতিপক্ষের উপর হামলা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ হামলার ঘটনায় আহত হয়েছেন সাতজন। গত ১৩ মার্চ দুপুর দুইটার দিকে মতলব দক্ষিণ উপজেলার নায়েরগাঁও দক্ষিণ ইউনিয়নের আধারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

Model Hospital

জানা যায়, উপজেলার নায়েরগাঁও দক্ষিণ ইউনিয়নের আধারা গ্রামের মৃত সাবিদ আলীর ছেলে রফিকুল ইসলাম সওদাগর পৈত্রিক ও খরিদ সূত্রে মালিক হয়ে বাড়িঘর নির্মাণ করে গত প্রায় ৩৫ বছর যাবত বসবাস করে আসছেন। গত ২ বছর আগে রফিকুল ইসলাম সওদাগরের বড় ভাই মমিন সওদাগরের মেয়ে নাছিমা খাতুন পাশর্^বর্তী বাসিন্দা আমির হোসেন সওদাগরের ছেলে কামাল সওদাগর গংদের কাছে প্রতারণা করে ভূয়া চৌহদ্দি দিয়ে রফিকুল ইসলাম সওদাগরের তপশীলোক্ত বসতভিটা বিক্রি করে দেন। এরপর থেকেই কামাল গং জোরপূর্বক উক্ত জায়গা দখলের চেষ্টা চালায়।

এরই জের ধরে গত ১৩ মার্চ দুপুরে কামাল গংদের পক্ষ নিয়ে তার শ^শুর নায়েরগাঁও এলাকার চান মিয়া সওদাগরের ছেলে আব্দুল মালেক সওদাগরের নেতৃত্বে আধারা গ্রামের আমির হোসেন সওদাগরের ছেলে কামাল সওদাগর, জামাল সওদাগর, গাজি মিয়ার ছেলে আমির হোসেন, আমির হোসেনের স্ত্রী আফিয়া খাতুনসহ ৩০/৩৫ জনের একটি সন্ত্রাসীদল দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে জোরপূর্বক রফিক সওদাগরের জায়গা দখলের চেষ্টা চালায়ি তাদের উপর হামলা করে। হামলায় রফিকুল ইসলাম সওদাগর, তার ভাগিনা খলিল সওদাগর, স্ত্রী শেফালী বেগম, খলিলের মেয়ে সালমা আক্তার, খলিলের ভাইয়ের স্ত্রী জুলিয়া আক্তার, আলমগীর সওদাগরের স্ত্রী রুমকিসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়।

পরে রফিক সওদাগরের স্ত্রী শেফালী বেগম ৯৯৯ নম্বরে কল দিলে মতলব দক্ষিণ থানা পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

আহতদের ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা এসে আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতাল ও ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় মো. খলিল সওদাগরকে মতলব দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হয়েছে।

আহত রফিকুল ইসলাম জানান, আমার পৈত্রিক ও খরিদকৃত জায়গা কামাল গংরা জোরপূর্বক দখল করতে চায়। এরই জের ধরে তারা দলবল নিয়ে আমাদের উপর হামলা চালায়। আমি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এ ঘটনায় রফিকুল ইসলাম সওদাগরের স্ত্রী শেফালী বেগম বাদী হয়ে মতলব দক্ষিণ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

মতলব দক্ষিণ থানার এএসআই আব্দুল মতিন জানান, অভিযোগ পেয়ে এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে।