ঢাকা ১২:২৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কচুয়ায় অগ্নিকাণ্ডে ৫টি দোকান ভষ্মীভূত, ক্ষতিসাধন প্রায় ২৫ লক্ষ টাকা

মো. রাছেল, কচুয়া : চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার গোহট উত্তর ইউনিয়নের তালতলী গ্রামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৫টি দোকান ঘর পুড়ে ভষ্মীভূত হয়েছে।

Model Hospital

স্থানীয়রা জানান, সোমবার বাজারের ব্যবসায়ীরা দিন শেষে যে যার বাড়িতে যখন ঘুমে আচ্ছন্ন, তখন মধ্যরাতের আগুনে গোহট উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় সংলগ্ন তালতলী বাজারে ৫টি দোকানের মালামাল আগুনে পুড়ে সব নিঃশেষ হয়ে গেছে। আগুন লাগার পর পরই আগুনের লেলিহান শিখা মুহুর্তের মধ্যেই চারদিকে ছড়িয়ে পরে। সংবাদ পেয়ে কচুয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ২টি ইউনিট ও স্থানীয় এলাবাসী মিলে প্রায় দুই ঘন্টা খানেক চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়।

ততক্ষণে আঃ আউয়ালের মুদি দোকান ও গোডাউন, আবুল বাশারের ওষুধের দোকান, নিখিল শীলের সেলুন দোকান, নজরুলের চায়ের দোকান এবং ওই মার্কেটে থাকা মামুনের অটোরিক্সাটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। অগ্নিকান্ডের ফলে প্রায় ২৪-২৫ লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা জানান। তবে কি কারনে আগুনের সূত্রপাত ঘটেছে তা জানা যায়নি।

কচুয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার মাহতাব মন্ডল জানান, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

ক্যাব চাঁদপুরের আয়োজনে বাজার পরিস্থিতি ও নিরাপদ খাদ্য বিষয়ক মত বিনিময় সভা

কচুয়ায় অগ্নিকাণ্ডে ৫টি দোকান ভষ্মীভূত, ক্ষতিসাধন প্রায় ২৫ লক্ষ টাকা

আপডেট সময় : ১২:৩৩:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১ ফেব্রুয়ারী ২০২২

মো. রাছেল, কচুয়া : চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার গোহট উত্তর ইউনিয়নের তালতলী গ্রামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৫টি দোকান ঘর পুড়ে ভষ্মীভূত হয়েছে।

Model Hospital

স্থানীয়রা জানান, সোমবার বাজারের ব্যবসায়ীরা দিন শেষে যে যার বাড়িতে যখন ঘুমে আচ্ছন্ন, তখন মধ্যরাতের আগুনে গোহট উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় সংলগ্ন তালতলী বাজারে ৫টি দোকানের মালামাল আগুনে পুড়ে সব নিঃশেষ হয়ে গেছে। আগুন লাগার পর পরই আগুনের লেলিহান শিখা মুহুর্তের মধ্যেই চারদিকে ছড়িয়ে পরে। সংবাদ পেয়ে কচুয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ২টি ইউনিট ও স্থানীয় এলাবাসী মিলে প্রায় দুই ঘন্টা খানেক চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়।

ততক্ষণে আঃ আউয়ালের মুদি দোকান ও গোডাউন, আবুল বাশারের ওষুধের দোকান, নিখিল শীলের সেলুন দোকান, নজরুলের চায়ের দোকান এবং ওই মার্কেটে থাকা মামুনের অটোরিক্সাটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। অগ্নিকান্ডের ফলে প্রায় ২৪-২৫ লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা জানান। তবে কি কারনে আগুনের সূত্রপাত ঘটেছে তা জানা যায়নি।

কচুয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার মাহতাব মন্ডল জানান, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে।