ঢাকা ০৩:০০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাইমচরে একদিনে দুই রাসেল ভাইপার ধরা, আতঙ্কে এলাকাবাসী

হাইমচর উপজেলায় ফসলি জমি থেকে কিলিংমেশিন খ্যাত ভয়ংকর বিষধর রাসেল ভাইপার সাপ উদ্ধার করেছে এলাকাবাসী।

Model Hospital

শুক্রবার (৫ জুলাই) দুপুরে উপজেলার ৩নং দক্ষিণ আলগী ইউনিয়নের চরভাঙ্গা গ্রামের কমডেকা মাঠে কৃষক মিজানুর রহমান কাজী নামে এক ব্যক্তির ফসলি জমিতে সাপটির দেখা মিলে। পরে কৃষককে ছোবল দেয়ার জন্য এগিয়ে আসলে সে সাপটিকে তৎক্ষণাৎ পিটিয়ে মেরে ফেলেন।

স্থানীয় কৃষক মিজানুর রহমান কাজী জানান, বিভিন্ন সময় ফেসবুকে রাসেল ভাইপার সাপ দেখেছি। এবার বাস্তবে আমার ফসলি জমিতে এ সাপের দেখা মিলল।

শুক্রবার দুপুর ১টার সময় গরুর জন্য আমার ফসলি জমিতে ঘাস কাটতে গিয়ে দেখি সাপটি জমিতে পানির মধ্যে ছোটাছুটি করছে। সাপটি দেখে আমি আতঙ্কিত হয়ে পড়ি। পরে সাপটি আমাকে কামড় দেওয়ার জন্য তেড়ে আসলে লাঠি সোটা দিয়ে সাপটিকে পিটিয় মেরে ফেলি।

জানা গেছে, একই দিনে বিকেলে উপজেলার নীলকমল ইউনিয়নের ঈশানবালা লঞ্চঘাটে মেঘনার জোয়ারে ভেসে আসে রাসেল ভাইপার সাপ পরে এলাকাবাসী সাপটি পিটিয়ে পেরে পেলেন। সাপটি বাংলাদেশে বর্তমানে যে সব সাপ দেখা যায় সেগুলোর মধ্যে রাসেল ভাইপার সবচেয়ে বিষাক্ত। এই সাপের কামড়ে শরীরের দংশিত অংশে বিষ ছড়িয়ে অঙ্গহানি, ক্রমাগত রক্তপাত, রক্ত জমাট বাঁধা, স্নায়ু বৈকল্য, চোখ ভারি হয়ে যাওয়া, পক্ষাঘাত ও কিডনির ক্ষতিসহ বিভিন্ন ধরনের শারীরিক উপসর্গ দেখা দেয়।

এ বিষয়ে হাইমচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্মকর্তা ডাঃ একে এম আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, রাসেলস ভাইপার সাপ লোকালয়ে সাধারণত খুব কমই দেখা যায়। বাচ্চা দেওয়ার কারণে হয়তো ওই সাপটি লোকালয়ে চলে এসেছে। তবে সবাইকে এ বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রাসেল ভাইপারে ভ্যাক্সিন রয়েছে। যদি কাউকে এই সাপটি কামড় দেয়, তাহলে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে ভ্যাকসিন দেওয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো।

ট্যাগস :

শাহরাস্তিতে মাদক মামলায় যুবক আটক

হাইমচরে একদিনে দুই রাসেল ভাইপার ধরা, আতঙ্কে এলাকাবাসী

আপডেট সময় : ০৮:২৯:৪০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৫ জুলাই ২০২৪

হাইমচর উপজেলায় ফসলি জমি থেকে কিলিংমেশিন খ্যাত ভয়ংকর বিষধর রাসেল ভাইপার সাপ উদ্ধার করেছে এলাকাবাসী।

Model Hospital

শুক্রবার (৫ জুলাই) দুপুরে উপজেলার ৩নং দক্ষিণ আলগী ইউনিয়নের চরভাঙ্গা গ্রামের কমডেকা মাঠে কৃষক মিজানুর রহমান কাজী নামে এক ব্যক্তির ফসলি জমিতে সাপটির দেখা মিলে। পরে কৃষককে ছোবল দেয়ার জন্য এগিয়ে আসলে সে সাপটিকে তৎক্ষণাৎ পিটিয়ে মেরে ফেলেন।

স্থানীয় কৃষক মিজানুর রহমান কাজী জানান, বিভিন্ন সময় ফেসবুকে রাসেল ভাইপার সাপ দেখেছি। এবার বাস্তবে আমার ফসলি জমিতে এ সাপের দেখা মিলল।

শুক্রবার দুপুর ১টার সময় গরুর জন্য আমার ফসলি জমিতে ঘাস কাটতে গিয়ে দেখি সাপটি জমিতে পানির মধ্যে ছোটাছুটি করছে। সাপটি দেখে আমি আতঙ্কিত হয়ে পড়ি। পরে সাপটি আমাকে কামড় দেওয়ার জন্য তেড়ে আসলে লাঠি সোটা দিয়ে সাপটিকে পিটিয় মেরে ফেলি।

জানা গেছে, একই দিনে বিকেলে উপজেলার নীলকমল ইউনিয়নের ঈশানবালা লঞ্চঘাটে মেঘনার জোয়ারে ভেসে আসে রাসেল ভাইপার সাপ পরে এলাকাবাসী সাপটি পিটিয়ে পেরে পেলেন। সাপটি বাংলাদেশে বর্তমানে যে সব সাপ দেখা যায় সেগুলোর মধ্যে রাসেল ভাইপার সবচেয়ে বিষাক্ত। এই সাপের কামড়ে শরীরের দংশিত অংশে বিষ ছড়িয়ে অঙ্গহানি, ক্রমাগত রক্তপাত, রক্ত জমাট বাঁধা, স্নায়ু বৈকল্য, চোখ ভারি হয়ে যাওয়া, পক্ষাঘাত ও কিডনির ক্ষতিসহ বিভিন্ন ধরনের শারীরিক উপসর্গ দেখা দেয়।

এ বিষয়ে হাইমচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্মকর্তা ডাঃ একে এম আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, রাসেলস ভাইপার সাপ লোকালয়ে সাধারণত খুব কমই দেখা যায়। বাচ্চা দেওয়ার কারণে হয়তো ওই সাপটি লোকালয়ে চলে এসেছে। তবে সবাইকে এ বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রাসেল ভাইপারে ভ্যাক্সিন রয়েছে। যদি কাউকে এই সাপটি কামড় দেয়, তাহলে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে ভ্যাকসিন দেওয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো।