ঢাকা ০৯:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদগঞ্জে প্রতীক পেয়ে ভোটের মাঠে প্রার্থীরা

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদের প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।
সোমবার (১৩ মে) সকাল ১০টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ফরিদগঞ্জ উপজেলার মোট ৮ জন প্রার্থীর হাতে প্রতীক তুলে দেন অতিরিক্ত আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা (কুমিল্লা) ও রিটার্নিং অফিসার (কচুয়া ও ফরিদগঞ্জ) মোজাম্মেল হোসেন।
এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন চাঁদপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ তোফায়েল হোসেন।
জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, এই নির্বাচনে ফরিদগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ২ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।
এদিকে প্রতীক পেয়ে প্রার্থীরা ফিরে যান নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকায়। পরে কর্মী সমর্থকদের নিয়ে ভোট চাইতে নেমে পড়েন প্রচারণায়।
এর আগে গতকাল রবিবার (১২ মে) এ উপজেলায় ৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ও একজন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন। আগামী ২৯ মে ইভিএমের মাধ্যমে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। আর এ উপজেলায় হেভিওয়েট প্রার্থীরা চেয়ারম্যানসহ অন্যান্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে তাদের অনেকেই স্থানীয় সংসদ সদস্যদের ঘনিষ্ঠ হলেও নির্বাচনের আচরণবিধির কারণে প্রার্থীদের এড়িয়ে চলছেন সংশ্লিষ্ট আসনের সংসদ সদস্য।
এতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছেন।
অন্যদিকে এই নির্বাচনে কেবলমাত্র আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগী সংগঠনের নেতারাই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এতে বিএনপিসহ প্রধান বিরোধী দলের কেউ অংশ নেননি। এরপরও ভোটের মাঠের রাজনীতির খেলা জমে উঠতে শুরু করেছে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলায়।
ট্যাগস :

ফরিদগঞ্জে প্রতীক পেয়ে ভোটের মাঠে প্রার্থীরা

আপডেট সময় : ০৯:৫৬:৪৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০২৪
ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদের প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।
সোমবার (১৩ মে) সকাল ১০টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ফরিদগঞ্জ উপজেলার মোট ৮ জন প্রার্থীর হাতে প্রতীক তুলে দেন অতিরিক্ত আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা (কুমিল্লা) ও রিটার্নিং অফিসার (কচুয়া ও ফরিদগঞ্জ) মোজাম্মেল হোসেন।
এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন চাঁদপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ তোফায়েল হোসেন।
জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, এই নির্বাচনে ফরিদগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ২ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।
এদিকে প্রতীক পেয়ে প্রার্থীরা ফিরে যান নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকায়। পরে কর্মী সমর্থকদের নিয়ে ভোট চাইতে নেমে পড়েন প্রচারণায়।
এর আগে গতকাল রবিবার (১২ মে) এ উপজেলায় ৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ও একজন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন। আগামী ২৯ মে ইভিএমের মাধ্যমে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। আর এ উপজেলায় হেভিওয়েট প্রার্থীরা চেয়ারম্যানসহ অন্যান্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে তাদের অনেকেই স্থানীয় সংসদ সদস্যদের ঘনিষ্ঠ হলেও নির্বাচনের আচরণবিধির কারণে প্রার্থীদের এড়িয়ে চলছেন সংশ্লিষ্ট আসনের সংসদ সদস্য।
এতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছেন।
অন্যদিকে এই নির্বাচনে কেবলমাত্র আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগী সংগঠনের নেতারাই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এতে বিএনপিসহ প্রধান বিরোধী দলের কেউ অংশ নেননি। এরপরও ভোটের মাঠের রাজনীতির খেলা জমে উঠতে শুরু করেছে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলায়।