ঢাকা ১১:১৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তি ক্রিকেট একাডেমীর আয়োজনে ট্যালেন্ট হান্টের পর্দা উঠলো আজ

চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলায় এবারই প্রথম আয়োজন হচ্ছে ট্যালেন্ট হান্ট কর্মসূচী। প্রথম বিভাগ ক্রিকেটার সাদ্দাম হোসেন মিঠু’র পৃষ্ঠপোষকতায় ও শাহরাস্তি ক্রিকেট একাডেমীর আয়োজনে সূচীপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে তৃণমূল পর্যায়ে ছড়িয়ে থাকা প্রতিভাবান প্লেয়ারদের স্বপ্ন পূরণে আজ সকাল ১০ ঘটিকার সময় দুই দিন ব্যাপী ট্যালেন্ট হান্ট কর্মসূচি শুরু হয়েছে।
দুই দিনব্যাপী ট্যালেন্ট হান্ট ক্রিকেট কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সূচীপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ হাবিব উল্যাহ।
অনুষ্ঠানটিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাহরাস্তি উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ ইয়াসির আরাফাত এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাহরাস্তি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আলমগীর হোসেন।
এছাড়াও, আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চট্রগ্রাম বিভাগের বয়স ভিত্তিক দলের হেড কোচ মোঃ শামীম আখতাী ফারুকী, বিশিষ্ট সংগঠক ও ইন্দিরা রোড ক্রিকেট একাডেমি’র সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল মাজিদ, বাংলাদেশ জাতীয় বধির ক্রিকেট দল ও ঢাকা মেরিনার্স ইয়াং ক্লাবের হেড কোচ মোঃ আনিসুল ইসলাম ভূইয়া নিপু, শেখ কামাল স্পোর্টস একাডেমীর হেড কোচ মোঃ মোশারফ বাবু সহ আরও অনেকে।
প্রসঙ্গত, প্রায় পাঁচশত কিশোর যাদের বয়স ১০ থেকে ২১ বছর বয়সী ক্রিকেটার এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করছে রেজিষ্ট্রেশনের মাধ্যমে। চাঁদপুরের তিনটি উপজেলা থেকে মোট ৪০ জন প্লেয়ার বাছাই করা হবে। সেরা ৪০ জনকে উন্নত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বয়স ভিত্তিক দল এবং ঢাকার বিভিন্ন লীগে খেলার সুযোগ করে দেওয়া হবে। এছাড়া যারা বিকেএসপিতে ভর্তি হতে আগ্রহী তাদেরকে যোগ্যতা অনুযায়ী ভর্তি হওয়ার সুযোগ করে দেওয়া হবে। এই কর্মসূচির মাধ্যমে পূর্ণাঙ্গ ক্রিকেট একাডেমি চালু হবে যাতে সব ধরণের সুযোগ সুবিধা থাকবে এবং ভালো মানের কোচ ও ট্রেনার থাকবে।
শাহরাস্তি ক্রিকেট একাডেমীর পরিচালক মোঃ সাদ্দাম হোসেন মিঠু অনুষ্ঠানটি সম্পর্কে বলেন, এই সকল কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে গেলে ভালো মানের পৃষ্ঠপোষকতার প্রয়োজন হয়। ভালো মানের পৃষ্ঠপোষকতা পেলে আমি ইনশাআল্লাহ এইসব ট্যালেন্ট হান্টের মাধ্যমে জাতীয় পর্যায়ের কিছু ভালো মানের খেলোয়াড় বের করে আনতে পারবো। সকলেই এগিয়ে আসলে এসব প্রোগ্রামের মাধ্যমেই আমি শাহরাস্তিতে থেকেও বিভাগীয় বা জেলা পর্যায়ে খেলোয়াড় তৈরী করতে পারবো। যারা ভবিষ্যতে জাতীয় পর্যায়েও খেলতে পারবে বলে আমার বিশ্বাস।
প্রধান অতিথি মোঃ ইয়াসির আরাফাত শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আগত সকল খেলোয়াড়দের উদ্দেশ্যে বলেন, সাদ্দাম হোসেন মিঠুর প্রচেষ্ঠায় খেলোয়াড় অন্বেষণ এই কর্মসূচীর মাধ্যমে জাতীয় পর্যায়ে ভালো খেলোয়াড় তৈরী হবে বলে আমার বিশ্বাস। তার একক উদ্যোগে আয়োজিত এই কর্মসূচী গ্রহণের জন্য তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।
ট্যাগস :

শাহরাস্তি ক্রিকেট একাডেমীর আয়োজনে ট্যালেন্ট হান্টের পর্দা উঠলো আজ

আপডেট সময় : ০৯:০৮:৪৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ মে ২০২৪
চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলায় এবারই প্রথম আয়োজন হচ্ছে ট্যালেন্ট হান্ট কর্মসূচী। প্রথম বিভাগ ক্রিকেটার সাদ্দাম হোসেন মিঠু’র পৃষ্ঠপোষকতায় ও শাহরাস্তি ক্রিকেট একাডেমীর আয়োজনে সূচীপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে তৃণমূল পর্যায়ে ছড়িয়ে থাকা প্রতিভাবান প্লেয়ারদের স্বপ্ন পূরণে আজ সকাল ১০ ঘটিকার সময় দুই দিন ব্যাপী ট্যালেন্ট হান্ট কর্মসূচি শুরু হয়েছে।
দুই দিনব্যাপী ট্যালেন্ট হান্ট ক্রিকেট কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সূচীপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ হাবিব উল্যাহ।
অনুষ্ঠানটিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাহরাস্তি উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ ইয়াসির আরাফাত এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাহরাস্তি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আলমগীর হোসেন।
এছাড়াও, আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চট্রগ্রাম বিভাগের বয়স ভিত্তিক দলের হেড কোচ মোঃ শামীম আখতাী ফারুকী, বিশিষ্ট সংগঠক ও ইন্দিরা রোড ক্রিকেট একাডেমি’র সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল মাজিদ, বাংলাদেশ জাতীয় বধির ক্রিকেট দল ও ঢাকা মেরিনার্স ইয়াং ক্লাবের হেড কোচ মোঃ আনিসুল ইসলাম ভূইয়া নিপু, শেখ কামাল স্পোর্টস একাডেমীর হেড কোচ মোঃ মোশারফ বাবু সহ আরও অনেকে।
প্রসঙ্গত, প্রায় পাঁচশত কিশোর যাদের বয়স ১০ থেকে ২১ বছর বয়সী ক্রিকেটার এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করছে রেজিষ্ট্রেশনের মাধ্যমে। চাঁদপুরের তিনটি উপজেলা থেকে মোট ৪০ জন প্লেয়ার বাছাই করা হবে। সেরা ৪০ জনকে উন্নত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বয়স ভিত্তিক দল এবং ঢাকার বিভিন্ন লীগে খেলার সুযোগ করে দেওয়া হবে। এছাড়া যারা বিকেএসপিতে ভর্তি হতে আগ্রহী তাদেরকে যোগ্যতা অনুযায়ী ভর্তি হওয়ার সুযোগ করে দেওয়া হবে। এই কর্মসূচির মাধ্যমে পূর্ণাঙ্গ ক্রিকেট একাডেমি চালু হবে যাতে সব ধরণের সুযোগ সুবিধা থাকবে এবং ভালো মানের কোচ ও ট্রেনার থাকবে।
শাহরাস্তি ক্রিকেট একাডেমীর পরিচালক মোঃ সাদ্দাম হোসেন মিঠু অনুষ্ঠানটি সম্পর্কে বলেন, এই সকল কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে গেলে ভালো মানের পৃষ্ঠপোষকতার প্রয়োজন হয়। ভালো মানের পৃষ্ঠপোষকতা পেলে আমি ইনশাআল্লাহ এইসব ট্যালেন্ট হান্টের মাধ্যমে জাতীয় পর্যায়ের কিছু ভালো মানের খেলোয়াড় বের করে আনতে পারবো। সকলেই এগিয়ে আসলে এসব প্রোগ্রামের মাধ্যমেই আমি শাহরাস্তিতে থেকেও বিভাগীয় বা জেলা পর্যায়ে খেলোয়াড় তৈরী করতে পারবো। যারা ভবিষ্যতে জাতীয় পর্যায়েও খেলতে পারবে বলে আমার বিশ্বাস।
প্রধান অতিথি মোঃ ইয়াসির আরাফাত শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আগত সকল খেলোয়াড়দের উদ্দেশ্যে বলেন, সাদ্দাম হোসেন মিঠুর প্রচেষ্ঠায় খেলোয়াড় অন্বেষণ এই কর্মসূচীর মাধ্যমে জাতীয় পর্যায়ে ভালো খেলোয়াড় তৈরী হবে বলে আমার বিশ্বাস। তার একক উদ্যোগে আয়োজিত এই কর্মসূচী গ্রহণের জন্য তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।