ঢাকা ১১:৪৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তিতে রাতে দুর্বৃত্তের দেয়া আগুনে ভষ্মিভূত আ’লীগ নেতার দোকান

বিশেষ প্রতিনিধি : চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে ইউপি নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় রাতে দুর্বৃত্তের দেয়া আগুনে এক ইউপি আ’লীগ নেতার দোকান ভষ্মিভূত হয়েছে । ওই সংবাদ পেয়ে শাহরাস্তি মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল মান্নান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। শুক্রবার ক্ষতিগ্রস্ত আ’লীগ নেতা গৌতম চন্দ্র পাল শাহরাস্তি মডেল থানায় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তদের আসামি করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত উপজেলার টামটা উত্তর ইউপির সুরসুই এলাকায় পাল বাড়ি সংলগ্ন স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

Model Hospital

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার স্থানীয় সূত্র জানায়, ওই ইউপির ৮ নং ওয়ার্ড আ”লীগের সাধারণ সম্পাদক গণমাধ্যমকর্মী ডাঃ গৌতম চন্দ্র পাল দীর্ঘদিন ধরে ওই জনপদে (আরএমপি) ডাক্তার হিসেবে স্থানীয়দের সেবা প্রদান করে আসছেন। ওই হিসেবে ব্যক্তি গৌতম পালের প্রতি স্থানীয়দের অনুরোধে তিনি টামটা উত্তর ইউপির ৮ নং ওয়ার্ড আলীগের সাধারণ সম্পাদকের পদে অধিষ্ঠিত হন। ওই হিসেবে সম্প্রতি ২৬-ডিসেম্বরের চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে সেখানে তিনি দলীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক নৌকার প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেন ।

২৭ ডিসেম্বর নির্বাচনের পরের দিন কতিপয় স্থানীয় দুর্বৃত্ত তার পুত্র মানিক চন্দ্র পালকে সাসিয়ে যায়। ওই সময় তিনি বিষয়টিকে আমলে না নিয়ে শুক্রবার অন্য দিনের মতো রাতের বেলায় তিনি দোকান বন্ধ করে বাড়িতে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। পরে রাত আনুমানিক বারোটার সময় পথচারীদের চিৎকারে তিনি ছুটে এসে দেখেন কে বা কারা তার দোকানে অগ্নিসংযোগ করে জ্বালিয়ে দিয়েছে।

তিনি হতভম্ব হয়ে ছুটে এসে স্থানীয়দের এবং শাহরাস্তি ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্সের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ততক্ষণে তার দোকানে রক্ষিত মালামাল ভস্মীভূত হয়। ওই দোকানে রক্ষিত ঔষধ, বিকাশের মুঠোফোন নগদ টাকাসহ ৫-৬ লক্ষ টাকার মালামাল ক্ষতিসাধন হয় ।

এই ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্ত আ’লীগ নেতা গৌতম বলেন, আমি একজন নিরীহ মানুষ, স্থানীয় ভাবে গ্রামীণ মানুষকে চিকিৎসা প্রদান করে থাকি। মানুষের ভালোবাসায় আ’লীগের রাজনীতিতে নিজেকে যুক্ত করেছি। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আমার সর্বস্ব কে বা কারা পুড়িয়ে দিয়েছে। আমি নিঃস্ব হয়ে গেছি। আশাকরি প্রশাসন বিষয়টি সুনজরে নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুর শহরে আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে দাঁড়ালো অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন

শাহরাস্তিতে রাতে দুর্বৃত্তের দেয়া আগুনে ভষ্মিভূত আ’লীগ নেতার দোকান

আপডেট সময় : ০৪:৩৮:২৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২১

বিশেষ প্রতিনিধি : চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে ইউপি নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় রাতে দুর্বৃত্তের দেয়া আগুনে এক ইউপি আ’লীগ নেতার দোকান ভষ্মিভূত হয়েছে । ওই সংবাদ পেয়ে শাহরাস্তি মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল মান্নান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। শুক্রবার ক্ষতিগ্রস্ত আ’লীগ নেতা গৌতম চন্দ্র পাল শাহরাস্তি মডেল থানায় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তদের আসামি করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত উপজেলার টামটা উত্তর ইউপির সুরসুই এলাকায় পাল বাড়ি সংলগ্ন স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

Model Hospital

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার স্থানীয় সূত্র জানায়, ওই ইউপির ৮ নং ওয়ার্ড আ”লীগের সাধারণ সম্পাদক গণমাধ্যমকর্মী ডাঃ গৌতম চন্দ্র পাল দীর্ঘদিন ধরে ওই জনপদে (আরএমপি) ডাক্তার হিসেবে স্থানীয়দের সেবা প্রদান করে আসছেন। ওই হিসেবে ব্যক্তি গৌতম পালের প্রতি স্থানীয়দের অনুরোধে তিনি টামটা উত্তর ইউপির ৮ নং ওয়ার্ড আলীগের সাধারণ সম্পাদকের পদে অধিষ্ঠিত হন। ওই হিসেবে সম্প্রতি ২৬-ডিসেম্বরের চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে সেখানে তিনি দলীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক নৌকার প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেন ।

২৭ ডিসেম্বর নির্বাচনের পরের দিন কতিপয় স্থানীয় দুর্বৃত্ত তার পুত্র মানিক চন্দ্র পালকে সাসিয়ে যায়। ওই সময় তিনি বিষয়টিকে আমলে না নিয়ে শুক্রবার অন্য দিনের মতো রাতের বেলায় তিনি দোকান বন্ধ করে বাড়িতে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। পরে রাত আনুমানিক বারোটার সময় পথচারীদের চিৎকারে তিনি ছুটে এসে দেখেন কে বা কারা তার দোকানে অগ্নিসংযোগ করে জ্বালিয়ে দিয়েছে।

তিনি হতভম্ব হয়ে ছুটে এসে স্থানীয়দের এবং শাহরাস্তি ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্সের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ততক্ষণে তার দোকানে রক্ষিত মালামাল ভস্মীভূত হয়। ওই দোকানে রক্ষিত ঔষধ, বিকাশের মুঠোফোন নগদ টাকাসহ ৫-৬ লক্ষ টাকার মালামাল ক্ষতিসাধন হয় ।

এই ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্ত আ’লীগ নেতা গৌতম বলেন, আমি একজন নিরীহ মানুষ, স্থানীয় ভাবে গ্রামীণ মানুষকে চিকিৎসা প্রদান করে থাকি। মানুষের ভালোবাসায় আ’লীগের রাজনীতিতে নিজেকে যুক্ত করেছি। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আমার সর্বস্ব কে বা কারা পুড়িয়ে দিয়েছে। আমি নিঃস্ব হয়ে গেছি। আশাকরি প্রশাসন বিষয়টি সুনজরে নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।