ঢাকা ০৮:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদগঞ্জে মামুনের বিলাসী গাড়ি-বাড়ির পেছনে প্রবাসীদের সাথে ভয়ংকর প্রতারণা

প্রবাসীদের অপহরণ, এরপর দেশ থেকেই ভুক্তভোগী পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে চক্রের কাছে স্ত্রীর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট দিয়ে পৌঁছে দেয়া হতো মুক্তিপণের টাকা। আবার দুবাই-মালয়েশিয়ায় ভুয়া ভিসা দিয়ে প্রতারণা করে লুটেছেন কোটি কোটি টাকা।

Model Hospital

এ ঘটনায় অভিযুক্ত চাঁদপুরের মামুনুরকে তার স্ত্রীসহ গ্রেফতার করেছে রামপুরা থানা পুলিশ।

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জের মামুনুর রশীদ। শূন্য থেকে বনে গেছেন কোটিপতি। বিলাসবহুল গাড়ি নিয়ে ঘুরার পাশাপাশি পরিবার নিয়ে থাকছেন কয়েক কোটি টাকার ফ্ল্যাটে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আবার দিচ্ছেন সেইসবের ভিডিও।

তবে এই অর্থের উৎস কোথায়? শতশত মানুষকে ভুয়া ভিসায় বিদেশে পাঠানোর নাম করে হাতিয়ে নিয়েছে কোট কোটি টাকা। প্রতারণার শিকার হয়েছেন অসংখ্য মানুষ, নিঃস্ব এখন তারা।

অভিযোগের পর মামুন ও তার স্ত্রীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ভুক্তভোগীরা জানান, মামুন ভুয়া অনলাইন সাইট তৈরি করে এরপর গ্রাহকদের বুঝাতেন তাদের ভিসা অনুমোদন হয়েছে। টাকা পাঠানোর পর দেখা যেত সব আবার বাতিল।

অভিযোগের তদন্তে নেমে পুলিশ গ্রেফতার করে মামুন ও তার স্ত্রীকে। উঠে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। রামপুরা থানার উপ পরিদর্শক মো. মমিনুর রহমান বলেন, মালয়েশিয়া কিংবা দুবাইয়ে অপহরণকারীদের হাতে জিম্মি হওয়া প্রবাসীদের পরিবারের কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায় করে মামুন পাঠাতো চক্রের কাছে। মামুনের স্ত্রীর অ্যাকাউন্ট থেকেই হতো অর্থ লেনদন।

মানবপাচারকারী চক্রের সঙ্গে জড়িত মামুন ও তার স্ত্রী ছাড়াও অন্যদের গ্রেফতারে অভিযান চলবে বলেও জানায় রামপুরা থানা পুলিশ।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে রিমালে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান সুমন

ফরিদগঞ্জে মামুনের বিলাসী গাড়ি-বাড়ির পেছনে প্রবাসীদের সাথে ভয়ংকর প্রতারণা

আপডেট সময় : ০৬:৫২:৫৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪

প্রবাসীদের অপহরণ, এরপর দেশ থেকেই ভুক্তভোগী পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে চক্রের কাছে স্ত্রীর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট দিয়ে পৌঁছে দেয়া হতো মুক্তিপণের টাকা। আবার দুবাই-মালয়েশিয়ায় ভুয়া ভিসা দিয়ে প্রতারণা করে লুটেছেন কোটি কোটি টাকা।

Model Hospital

এ ঘটনায় অভিযুক্ত চাঁদপুরের মামুনুরকে তার স্ত্রীসহ গ্রেফতার করেছে রামপুরা থানা পুলিশ।

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জের মামুনুর রশীদ। শূন্য থেকে বনে গেছেন কোটিপতি। বিলাসবহুল গাড়ি নিয়ে ঘুরার পাশাপাশি পরিবার নিয়ে থাকছেন কয়েক কোটি টাকার ফ্ল্যাটে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আবার দিচ্ছেন সেইসবের ভিডিও।

তবে এই অর্থের উৎস কোথায়? শতশত মানুষকে ভুয়া ভিসায় বিদেশে পাঠানোর নাম করে হাতিয়ে নিয়েছে কোট কোটি টাকা। প্রতারণার শিকার হয়েছেন অসংখ্য মানুষ, নিঃস্ব এখন তারা।

অভিযোগের পর মামুন ও তার স্ত্রীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ভুক্তভোগীরা জানান, মামুন ভুয়া অনলাইন সাইট তৈরি করে এরপর গ্রাহকদের বুঝাতেন তাদের ভিসা অনুমোদন হয়েছে। টাকা পাঠানোর পর দেখা যেত সব আবার বাতিল।

অভিযোগের তদন্তে নেমে পুলিশ গ্রেফতার করে মামুন ও তার স্ত্রীকে। উঠে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। রামপুরা থানার উপ পরিদর্শক মো. মমিনুর রহমান বলেন, মালয়েশিয়া কিংবা দুবাইয়ে অপহরণকারীদের হাতে জিম্মি হওয়া প্রবাসীদের পরিবারের কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায় করে মামুন পাঠাতো চক্রের কাছে। মামুনের স্ত্রীর অ্যাকাউন্ট থেকেই হতো অর্থ লেনদন।

মানবপাচারকারী চক্রের সঙ্গে জড়িত মামুন ও তার স্ত্রী ছাড়াও অন্যদের গ্রেফতারে অভিযান চলবে বলেও জানায় রামপুরা থানা পুলিশ।