ঢাকা ০৬:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদগঞ্জ বাজারের পেছনের গলির কাজে গুণগত মাণ রক্ষা হচ্ছে না

এস এম ইকবাল : ফরিদগঞ্জ পৌর সদর বাজারের পেছনের গল্লির উন্নয়ণ কাজের গুণগত মাণ রক্ষা না হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দীর্ঘদিন ভোগান্তির পর কাজ শুরু হলেও কাজে অনিয়ম আর গুণগত মানে প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই। কাজটি ২০১৮ সালে টেন্ডার সম্পন্ন হওয়ার পর ড্রেন নির্মাণের অযুহাতে দীর্ঘদিন ফেলে রাখা হয়েছে। অবশেষে কাজ শুরু করলেও মান রক্ষা না হওয়ায় ব্যবসায়ীরা ক্ষোভ প্রকাশ করছে।

Model Hospital

সিসি ঢালাইর পূর্বে বেডটি সঠিক নিয়মে মেকাডম করা হয়নি। দায়সারা ভাবে অল্প একটু খুঁটেই মেকাডম সম্পন্ন করা হয়েছে। এদিকে ঢালাই কাজে খোঁয়া সঠিকভাবে কিউরিং করা হয়নি। নিন্মমানের সিলেকশন বালি ও খোঁয়া দিয়ে কাজ করা হচ্ছে। এছাড়াও রাস্তার মধ্যখানে বিদ্যুতের খুঁটি রেখেই সিসি ডালাই দিচ্ছে ঠিকাদার।

ঠিকাদার আলমগীর মোল্লা জানান, কাজটি ৩৭ লাখ টাকায় টেন্ডার সম্পন্ন করা হলেও ড্রেন নির্মাণের ফলে কাজের পরিমাণ কমে যাওয়ায় মার্কেন্টাইল ব্যাংক রোড ও কেরোয়াগামী সড়কের সাথে সমন্বয় করে দেওয়া হয়েছে। কাজের গুণগত মান রক্ষা করেই কাজ করা হচ্ছে।

পৌরসভার উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাহমুদুন নবী জানান, কাজের গুণগত মান রক্ষা করেই কাজ চলছে। কাজ ৩শত ১০ মিটার। ড্রেনের কারণে কাজের পরিমাণ কমে যাওয়ায় এ অংশের কাজ শেষ করে বাকী অংশ কেরোয়াগামী সড়কে সমন্বয় করে দেওয়া হবে।

এ বিষয়ে পৌরসভার মেয়র যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী বলেন, বিষয়টি খুবই দুঃখ জনক, আমি পৌরসভার ইঞ্জিনিয়ারকে বলেছি যেন কোন ভাবেই রাস্তার কাজের গুনগত মান বিনষ্ট না হয়। তারপরও আমি বিষয়টি দেখবো।

ট্যাগস :

ফরিদগঞ্জ বাজারের পেছনের গলির কাজে গুণগত মাণ রক্ষা হচ্ছে না

আপডেট সময় : ০৩:৩৫:৫৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ নভেম্বর ২০২১

এস এম ইকবাল : ফরিদগঞ্জ পৌর সদর বাজারের পেছনের গল্লির উন্নয়ণ কাজের গুণগত মাণ রক্ষা না হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দীর্ঘদিন ভোগান্তির পর কাজ শুরু হলেও কাজে অনিয়ম আর গুণগত মানে প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই। কাজটি ২০১৮ সালে টেন্ডার সম্পন্ন হওয়ার পর ড্রেন নির্মাণের অযুহাতে দীর্ঘদিন ফেলে রাখা হয়েছে। অবশেষে কাজ শুরু করলেও মান রক্ষা না হওয়ায় ব্যবসায়ীরা ক্ষোভ প্রকাশ করছে।

Model Hospital

সিসি ঢালাইর পূর্বে বেডটি সঠিক নিয়মে মেকাডম করা হয়নি। দায়সারা ভাবে অল্প একটু খুঁটেই মেকাডম সম্পন্ন করা হয়েছে। এদিকে ঢালাই কাজে খোঁয়া সঠিকভাবে কিউরিং করা হয়নি। নিন্মমানের সিলেকশন বালি ও খোঁয়া দিয়ে কাজ করা হচ্ছে। এছাড়াও রাস্তার মধ্যখানে বিদ্যুতের খুঁটি রেখেই সিসি ডালাই দিচ্ছে ঠিকাদার।

ঠিকাদার আলমগীর মোল্লা জানান, কাজটি ৩৭ লাখ টাকায় টেন্ডার সম্পন্ন করা হলেও ড্রেন নির্মাণের ফলে কাজের পরিমাণ কমে যাওয়ায় মার্কেন্টাইল ব্যাংক রোড ও কেরোয়াগামী সড়কের সাথে সমন্বয় করে দেওয়া হয়েছে। কাজের গুণগত মান রক্ষা করেই কাজ করা হচ্ছে।

পৌরসভার উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাহমুদুন নবী জানান, কাজের গুণগত মান রক্ষা করেই কাজ চলছে। কাজ ৩শত ১০ মিটার। ড্রেনের কারণে কাজের পরিমাণ কমে যাওয়ায় এ অংশের কাজ শেষ করে বাকী অংশ কেরোয়াগামী সড়কে সমন্বয় করে দেওয়া হবে।

এ বিষয়ে পৌরসভার মেয়র যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী বলেন, বিষয়টি খুবই দুঃখ জনক, আমি পৌরসভার ইঞ্জিনিয়ারকে বলেছি যেন কোন ভাবেই রাস্তার কাজের গুনগত মান বিনষ্ট না হয়। তারপরও আমি বিষয়টি দেখবো।