ঢাকা ০২:১১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নরসিংদীর বর হেলিকপ্টারে চড়ে কচুয়ায়

হেলিকপ্টারে চড়ে কচুয়ায় এলেন নরসিংদীর বর মাসুম। কনের ইচ্ছা পূরণ ও সখের বশতি হয়ে মালদ্বীপ প্রবাসী নরসিংদী জেলার মনোহরদী উপজেলার সাতপাইকা গ্রামের মজিবুর রহমানের ছেলে ব্যবসায়ী মাসুম মৃধা ঘণ্টায় ৭২ হাজার টাকা ব্যয়ে হেলিকপ্টারে চড়ে কচুয়ায় আসেন। পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ের তারিখ ছিল বুধবার।

Model Hospital

বুধবার বেলা ২টার দিকে ভাড়া করা হেলিকপ্টারে করে মাসুম মৃধা তিনজন আত্মীয় নিয়ে মেয়ের বাড়ি নোয়াগাঁও গ্রামের পশ্চিম পাশের একটি খালি মাঠে অবতরণ করেন । অন্য বরযাত্রীরা মাইক্রোবাসে চড়ে আসেন কনের বাড়িতে। হেলিকপ্টার থেকে নামার সাথে সাথে কনের পক্ষ এলাকার লোকজন নিয়ে তাদের ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নেন।

এ ব্যাপারে বর মাসুম মৃধা বলেন, আমার এবং আমার হবু স্ত্রীর ইচ্ছে ছিলো হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করা। তাই বিয়ের দিনটি স্মরণীয় করে রাখতেই হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করতে আসা। এখন আমাদের খুব আনন্দ লাগছে।

মেয়ের বাবা তাজুল ইসলাম জানান, আত্মীয়স্বজন উপস্থিত থেকে ধুমধামের সঙ্গে বিয়ে দিয়েছি মেয়েকে। নোয়াগাঁও গ্রামের মধ্যে এই প্রথম আমাদের মেয়ে সুমাইয়াকে বরপক্ষ হেলিকপ্টারে করে নিয়ে যাওয়াতে আনন্দ লাগছে।

এসময় কচুয়া উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম আখতার হোসাইন, ফরিদ মেম্বারসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করেন।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

ক্যাব চাঁদপুরের আয়োজনে বাজার পরিস্থিতি ও নিরাপদ খাদ্য বিষয়ক মত বিনিময় সভা

নরসিংদীর বর হেলিকপ্টারে চড়ে কচুয়ায়

আপডেট সময় : ০৯:৪১:০২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৮ অক্টোবর ২০২৩

হেলিকপ্টারে চড়ে কচুয়ায় এলেন নরসিংদীর বর মাসুম। কনের ইচ্ছা পূরণ ও সখের বশতি হয়ে মালদ্বীপ প্রবাসী নরসিংদী জেলার মনোহরদী উপজেলার সাতপাইকা গ্রামের মজিবুর রহমানের ছেলে ব্যবসায়ী মাসুম মৃধা ঘণ্টায় ৭২ হাজার টাকা ব্যয়ে হেলিকপ্টারে চড়ে কচুয়ায় আসেন। পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ের তারিখ ছিল বুধবার।

Model Hospital

বুধবার বেলা ২টার দিকে ভাড়া করা হেলিকপ্টারে করে মাসুম মৃধা তিনজন আত্মীয় নিয়ে মেয়ের বাড়ি নোয়াগাঁও গ্রামের পশ্চিম পাশের একটি খালি মাঠে অবতরণ করেন । অন্য বরযাত্রীরা মাইক্রোবাসে চড়ে আসেন কনের বাড়িতে। হেলিকপ্টার থেকে নামার সাথে সাথে কনের পক্ষ এলাকার লোকজন নিয়ে তাদের ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নেন।

এ ব্যাপারে বর মাসুম মৃধা বলেন, আমার এবং আমার হবু স্ত্রীর ইচ্ছে ছিলো হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করা। তাই বিয়ের দিনটি স্মরণীয় করে রাখতেই হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করতে আসা। এখন আমাদের খুব আনন্দ লাগছে।

মেয়ের বাবা তাজুল ইসলাম জানান, আত্মীয়স্বজন উপস্থিত থেকে ধুমধামের সঙ্গে বিয়ে দিয়েছি মেয়েকে। নোয়াগাঁও গ্রামের মধ্যে এই প্রথম আমাদের মেয়ে সুমাইয়াকে বরপক্ষ হেলিকপ্টারে করে নিয়ে যাওয়াতে আনন্দ লাগছে।

এসময় কচুয়া উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম আখতার হোসাইন, ফরিদ মেম্বারসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করেন।