ঢাকা ০৬:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পুষ্টিকর খাবার নিশ্চিত করতে পাঁচ দফা প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর

নিউজ রুম : ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার জন্য স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাবার নিশ্চিত করতে পাঁচ দফা প্রস্তাব উত্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Model Hospital

আজ মঙ্গলবার ‘টোকিও নিউট্রিশন ফর গ্রোথ (এন ফোর জি) সামিট ২০২১’-এ ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এ প্রস্তাব দেন।

শেখ হাসিনা বলেন, করোনা মহামারি পুষ্টি উদ্যোগে উল্লেখযোগ্য বাধার সৃষ্টি করেছে। জনস্বাস্থ্য এবং পুষ্টির ওপর করোনা পরিস্থিতির যে প্রভাব তার চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে জরুরি পদক্ষেপ এবং ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা প্রয়োজন।

জনস্বাস্থ্যের ওপর করোনাভাইরাস চ্যালেঞ্জের প্রভাব মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার ওপর গুরুত্বারোপ করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, সব ধরনের অপুষ্টির অবসান ঘটাতে একটি বৈশ্বিক অংশীদারিত্ব গড়ে তোলার সাহসী অঙ্গীকারের সময় এসেছে। সব নাগরিকের জন্য পুষ্টি নিশ্চিত করা একটি কঠিন কাজ, পুষ্টি নিরাপত্তায় বিনিয়োগ উচ্চ আর্থ-সামাজিক রিটার্ন তৈরি করে টেকসই প্রবৃদ্ধি ও উন্নয়নের পথে নিয়ে যায়।

এ সময় ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার জন্য স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাবার নিশ্চিত করতে পাঁচ দফা প্রস্তাব উত্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।

পুষ্টি কর্মসূচিতে করোনা পরিস্থিতির চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে একসঙ্গে কাজের প্রস্তাব করেন তিনি। এছাড়া উচ্চ ফলনশীল পুষ্টিকর খাবারের উৎপাদন বাড়াতে গবেষণার অগ্রগতির জন্য সহযোগিতা বাড়ানোর অভিমত ব্যক্ত করেন।

ট্যাগস :

পুষ্টিকর খাবার নিশ্চিত করতে পাঁচ দফা প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর

আপডেট সময় : ০৪:০৩:৪৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২১

নিউজ রুম : ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার জন্য স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাবার নিশ্চিত করতে পাঁচ দফা প্রস্তাব উত্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Model Hospital

আজ মঙ্গলবার ‘টোকিও নিউট্রিশন ফর গ্রোথ (এন ফোর জি) সামিট ২০২১’-এ ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এ প্রস্তাব দেন।

শেখ হাসিনা বলেন, করোনা মহামারি পুষ্টি উদ্যোগে উল্লেখযোগ্য বাধার সৃষ্টি করেছে। জনস্বাস্থ্য এবং পুষ্টির ওপর করোনা পরিস্থিতির যে প্রভাব তার চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে জরুরি পদক্ষেপ এবং ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা প্রয়োজন।

জনস্বাস্থ্যের ওপর করোনাভাইরাস চ্যালেঞ্জের প্রভাব মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার ওপর গুরুত্বারোপ করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, সব ধরনের অপুষ্টির অবসান ঘটাতে একটি বৈশ্বিক অংশীদারিত্ব গড়ে তোলার সাহসী অঙ্গীকারের সময় এসেছে। সব নাগরিকের জন্য পুষ্টি নিশ্চিত করা একটি কঠিন কাজ, পুষ্টি নিরাপত্তায় বিনিয়োগ উচ্চ আর্থ-সামাজিক রিটার্ন তৈরি করে টেকসই প্রবৃদ্ধি ও উন্নয়নের পথে নিয়ে যায়।

এ সময় ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার জন্য স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাবার নিশ্চিত করতে পাঁচ দফা প্রস্তাব উত্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।

পুষ্টি কর্মসূচিতে করোনা পরিস্থিতির চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে একসঙ্গে কাজের প্রস্তাব করেন তিনি। এছাড়া উচ্চ ফলনশীল পুষ্টিকর খাবারের উৎপাদন বাড়াতে গবেষণার অগ্রগতির জন্য সহযোগিতা বাড়ানোর অভিমত ব্যক্ত করেন।