ঢাকা ০৮:৪৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাইমচরে বালতির পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

মোঃ সাজ্জাদ হোসেন রনি : হাইমচরে বালতির পানিতে ডুবে আমেনা নামের ১৪ মাসের এক শিশুর করুন মৃত্যু হয়েছে।
৯ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টায় আলগী দক্ষিন ইউনিয়নের গন্ডামারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শিশুটি গন্ডামারা গ্রামের সবুজ মিজির একমাত্র কন্যা সন্তান। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।
পারিবারিক সূত্রে জানাজায়, শিশুটির মা শারমিন বেগম খাটের পাশে পানি ভরা বালতি রাখেন।
তিনি তাঁর মেয়ে আমেনাকে খাটে ঘুমিয়ে রেখে বাড়ির কাজে করেন।  শিশুটি হঠাৎ ঘুম থেকে উঠে খাটের পাশে থাকা বালতিতে হামাগুডি করতে করতে  পড়ে যায় আশপাশের মানুষজন ও আত্মীয়-স্বজন শিশুটিকে হাইমচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসকগন তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
মৃত শিশুটির পিতা সবুজ মিজি বলেন আমার মেয়ে আমেনা ছিল আমাদের পরিবারের সকলের চোখের মণি। তাকে আমরা এভাবে হারিয়ে ফেলবো তা ভাবতে পারিনি। মহান আল্লাহপাক আমার কাছ থেকে শোনা মণিকে কেঁড়ে নিয়ে আমাকে এ কেমন পরিক্ষা নিচ্ছেন । আমি আমার মেয়েকে হারানোর শোক সইবো কিভাবে।
ট্যাগস :

হাইমচরে বালতির পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

আপডেট সময় : ০১:০০:২৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ মার্চ ২০২৩
মোঃ সাজ্জাদ হোসেন রনি : হাইমচরে বালতির পানিতে ডুবে আমেনা নামের ১৪ মাসের এক শিশুর করুন মৃত্যু হয়েছে।
৯ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টায় আলগী দক্ষিন ইউনিয়নের গন্ডামারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শিশুটি গন্ডামারা গ্রামের সবুজ মিজির একমাত্র কন্যা সন্তান। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।
পারিবারিক সূত্রে জানাজায়, শিশুটির মা শারমিন বেগম খাটের পাশে পানি ভরা বালতি রাখেন।
তিনি তাঁর মেয়ে আমেনাকে খাটে ঘুমিয়ে রেখে বাড়ির কাজে করেন।  শিশুটি হঠাৎ ঘুম থেকে উঠে খাটের পাশে থাকা বালতিতে হামাগুডি করতে করতে  পড়ে যায় আশপাশের মানুষজন ও আত্মীয়-স্বজন শিশুটিকে হাইমচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসকগন তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
মৃত শিশুটির পিতা সবুজ মিজি বলেন আমার মেয়ে আমেনা ছিল আমাদের পরিবারের সকলের চোখের মণি। তাকে আমরা এভাবে হারিয়ে ফেলবো তা ভাবতে পারিনি। মহান আল্লাহপাক আমার কাছ থেকে শোনা মণিকে কেঁড়ে নিয়ে আমাকে এ কেমন পরিক্ষা নিচ্ছেন । আমি আমার মেয়েকে হারানোর শোক সইবো কিভাবে।