ঢাকা ০৫:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাজীগঞ্জে আসল পুলিশের হাতে ধরা পড়লো নকল পুলিশ !

সাইফুল ইসলাম সিফাত : হাজীগঞ্জে পুলিশের পোষাক পড়ে এজেন্ট ব্যাংকের সাড়ে ৭ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় ২ ছিনতাইকারীকে আটক করেছে পুলিশ।

Model Hospital

রবিবার সন্ধ্যায় কুমিল্লা দক্ষিণ থানার সাউথ ফিলিং স্টেশনের সামনে থেকে হাজীগঞ্জ থানার এসইআই মিসবাহ ও এএসআই রেজাউল করিম সঙ্গীয় ফোর্স তাদেরকে আটক করে।

আটককৃতরা হলো চাঁদপুর সদর উপজেলার মদনা গ্রামের মিনাগাজীর ছেলে মিন্টু গাজী ও ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার ধলাইরচর গ্রামের মৃত আ. রউফের ছেলে রানা সিকদার প্রকাশ কেরামত আলী। আটককৃতরা সংঘবদ্ধ একটি ছিনতাইকারী দলের সক্রিয় সদস্য। এরা কখনো ডিবি ও কখনো পুলিশের পোষাক পড়ে সড়ক মহাসড়কে ছিনতাই করে।

গত বুধবার দুপরে ইসলামী ব্যাংক ফরিদগঞ্জের শোল্লা বাজারের এজেন্ট শাখার পরিচালক নাজবুল হায়দার চৌধুরী ইসলামী ব্যাংক হাজীগঞ্জ শাখা থেকে টাকা উত্তোলণ করে ফরিদগঞ্জে যাওয়ার সময় উপজেলার হাজীগঞ্জ-রামগঞ্জ সড়কের রনি ব্রিক ফিল্ডের সামনে থেকে পুলিশ পরিচয়ে নাজবুলকে আটক করে গাড়ীতে তুলে চোখ বেঁধে ফেলে। পরে তার কাছ থেকে সাড়ে ৭ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে তাকে রাস্তায় ফেলে দেয়। এ ঘটনায় পুলিশ বিভিন্ন সিসিটিভির ফুটেজ দেখে ছিনতাইকারীদের চিহ্নিত করে আটক করে।

হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ জোবাইর সৈয়দ জানান, আটককৃতরা সংঘবদ্ধ একটি ছিনতাইকারী চক্র। এদের সাথে আরো ৪জন আছে বলে তারা স্বীকার করেছে। আটককৃত প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ছিনতাইয়ের ঘটনায় বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

হাজীগঞ্জে ছিনতাইয়ের ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

স্কুলের শ্রেণিকক্ষে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় ছাত্রীসহ প্রধান শিক্ষক আটক

হাজীগঞ্জে আসল পুলিশের হাতে ধরা পড়লো নকল পুলিশ !

আপডেট সময় : ০২:২৮:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

সাইফুল ইসলাম সিফাত : হাজীগঞ্জে পুলিশের পোষাক পড়ে এজেন্ট ব্যাংকের সাড়ে ৭ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় ২ ছিনতাইকারীকে আটক করেছে পুলিশ।

Model Hospital

রবিবার সন্ধ্যায় কুমিল্লা দক্ষিণ থানার সাউথ ফিলিং স্টেশনের সামনে থেকে হাজীগঞ্জ থানার এসইআই মিসবাহ ও এএসআই রেজাউল করিম সঙ্গীয় ফোর্স তাদেরকে আটক করে।

আটককৃতরা হলো চাঁদপুর সদর উপজেলার মদনা গ্রামের মিনাগাজীর ছেলে মিন্টু গাজী ও ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার ধলাইরচর গ্রামের মৃত আ. রউফের ছেলে রানা সিকদার প্রকাশ কেরামত আলী। আটককৃতরা সংঘবদ্ধ একটি ছিনতাইকারী দলের সক্রিয় সদস্য। এরা কখনো ডিবি ও কখনো পুলিশের পোষাক পড়ে সড়ক মহাসড়কে ছিনতাই করে।

গত বুধবার দুপরে ইসলামী ব্যাংক ফরিদগঞ্জের শোল্লা বাজারের এজেন্ট শাখার পরিচালক নাজবুল হায়দার চৌধুরী ইসলামী ব্যাংক হাজীগঞ্জ শাখা থেকে টাকা উত্তোলণ করে ফরিদগঞ্জে যাওয়ার সময় উপজেলার হাজীগঞ্জ-রামগঞ্জ সড়কের রনি ব্রিক ফিল্ডের সামনে থেকে পুলিশ পরিচয়ে নাজবুলকে আটক করে গাড়ীতে তুলে চোখ বেঁধে ফেলে। পরে তার কাছ থেকে সাড়ে ৭ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে তাকে রাস্তায় ফেলে দেয়। এ ঘটনায় পুলিশ বিভিন্ন সিসিটিভির ফুটেজ দেখে ছিনতাইকারীদের চিহ্নিত করে আটক করে।

হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ জোবাইর সৈয়দ জানান, আটককৃতরা সংঘবদ্ধ একটি ছিনতাইকারী চক্র। এদের সাথে আরো ৪জন আছে বলে তারা স্বীকার করেছে। আটককৃত প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ছিনতাইয়ের ঘটনায় বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

হাজীগঞ্জে ছিনতাইয়ের ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।