ঢাকা ০৩:২৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মোহনপুর ইউপির চেয়ারম্যান প্রার্থী অ্যাড. সেলিমের গণসংযোগ

মনিরুল ইসলাম মনির : মতলব উত্তর উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী এডভোকেট সেলিম মিয়া বিভিন্ন ওয়ার্ডে সারাদিন গণসংযোগ শেষে গত শনিবার রাতে ৯নং ওয়ার্ডের দেওয়ানকান্দি গ্রামে আবদুল মান্নান দেওয়ানের সভাপতিত্বে ও জাকির হোসেন বাবুর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন।

Model Hospital

মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য ও চাঁদপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি এডভোকেট সেলিম মিয়া। মোহনপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে তিনি জনগণের ভালোবাসায় দিন যত গড়িয়ে যাচ্ছে ততই এগিয়ে যাচ্ছেন সামনের দিকে।

এডভোকেট সেলিম মিয়া ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণের অকুণ্ঠ সমর্থন, আন্তরিক ভালবাসা ও সহযোগিতা নিয়ে মানব সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করার মাধ্যমে মোহনপুর ইউনিয়নকে একটি আধুনিক ও মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলতে চান এবং সেই লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিয়েই এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি। মোহনপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডের সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলে জানা গেছে এডভোকেট সেলিম মিয়ার প্রশংসার কথা শুনা যাচ্ছে।

সম্প্রতি এ প্রতিবেদক এর সাথে একান্ত আলাপচারিতায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক এডভোকেট সেলিম মিয়া বলেন, আমি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বুকে ধারণ করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি এবং বিশ্বশান্তির মডেল বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার কারিগর বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক দর্শন ও উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাস করি। আমি আমার প্রিয় মোহনপুর ইউনিয়নবাসীর ভালবাসায় সিক্ত হয়ে ইউনিয়নবাসীর সেবায় নিয়োজিত থাকতে চাই, মানুষের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে কথা বলতে চাই এবং সাধারণ মানুষের সুখ-দুঃখের সঙ্গী হতে চাই। তিনি বলেন, এলাকার আপামর জনগণ ও মুরব্বীরা আমাকে নির্বাচন করতে উৎসাহ দিচ্ছেন। তাদের আশা পূরণের জন্য আমি আগামী ১৬ মার্চের ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে আপনাদের কাছে এসেছি।

তিনি আরও বলেন, মোহনপুর ইউনিয়নের অবহেলিত-অসহায় মানুষের দারিদ্র বিমোচনের লক্ষ্যে সমাজসেবামূলক কাজে নিজেকে আত্মনিয়োগ করেছি। ইউনিয়নবাসীর সমর্থন, সহযোগিতা ও ভোটে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হলে সকল অবহেলিত-অসহায় হতদরিদ্র মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে যাবো। বর্তমানে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়টি কার্যকর করে ইউনিয়নকে একটি আধুনিক ও মডেল ইউনিয়ন হিসেবে উপহার দিব।

এলাকায় শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সেবার উন্নয়ন, অপরাধ প্রবনতা রোধ, মাদকমুক্ত চোরাচালানমুক্ত ও জুয়া নিমূূল করণসহ নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধ, বাল্য বিবাহ বন্ধ এবং বহুবিবাহ প্রতিরোধ, সমাজের সহিংসতা বন্ধ, যুব সমাজকে মাদকদ্রব্য সেবনের হাত থেকে ফিরিয়ে আনার অব্যাহত প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবো। পাশাপশি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা, পিছিয়ে পড়া অবহেলিত জনগোষ্ঠীদের সার্বিক সহযোগিতা, সামাজিক উন্নয়ন, রাস্তার সংস্কার ও রাস্তা নির্মাণ, লেখাপড়ার উন্নত পরিবেশ তৈরী, খেলাধুলার ব্যবস্থাসহ বিভিন্ন পদক্ষেপের মাধ্যমে মোহনপুর ইউনিয়নকে একটি আধুনিক ও মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলবো ইনশাআল্লাহ। সর্বোপরি তিনি আরও বলেন, মোহনপুর ইউনিয়নবাসী আমাকে চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করলে ইউনিয়ন হবে একটি আধুনিক ও মডেল ইউনিয়ন। যেখানে থাকবে উন্নত নাগরিক সকল সুযোগ-সুবিধা।

এডভোকেট সেলিম মিয়া বলেন, আমি মানবতার সেবায় ব্যক্তিগত উদ্যোগে সাধ্যমতো অবহেলিত-অসহায় মানুষের সাহায্য সহযোগিতা করে আসছি। আমি বিশ্বাস করি ব্যাপক পরিসরে জনসেবায় আত্মনিয়োগ করতে জনপ্রতিনিধির বিকল্প নেই। বর্তমানে এলাকায় আমার ব্যাপক জনসমর্থন আছে স্বপ্নের সোনার বাংলা এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজে অংশীদার হতে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মোহনপুর ইউনিয়নবাসী আমাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করবেন বলে আমি বিশ্বাস করি। সবশেষে এডভোকেট সেলিম মিয়া ইউনিয়নবাসীর মঙ্গল কামনা করে নিজের জন্য দোয়া প্রার্থনা করেছেন। তিনি সকলের ভালবাসা ও সহযোগীতা নিয়েই এগিয়ে যেতে চান সামনের দিকে।

পাশাপাশি তিনি শঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, নির্বাচনে কালো টাকার ছড়াছড়ি ও অবৈধ অস্ত্রের ঝনঝনানি রোধে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

এছাড়া তোফাজ্জল হোসেন মেম্বার, ডা. হযরত আলী, ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম সরদার, আক্কাস আলী দেওয়ান, ইস্পাহানি সরকার, শাহজাহান মিয়া’সহ নেতৃবৃন্দ।

ট্যাগস :

বিশাল মিছিল নিয়ে রাজপথে বুয়েট শিক্ষার্থীরা

মোহনপুর ইউপির চেয়ারম্যান প্রার্থী অ্যাড. সেলিমের গণসংযোগ

আপডেট সময় : ০৩:২৪:১৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

মনিরুল ইসলাম মনির : মতলব উত্তর উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী এডভোকেট সেলিম মিয়া বিভিন্ন ওয়ার্ডে সারাদিন গণসংযোগ শেষে গত শনিবার রাতে ৯নং ওয়ার্ডের দেওয়ানকান্দি গ্রামে আবদুল মান্নান দেওয়ানের সভাপতিত্বে ও জাকির হোসেন বাবুর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন।

Model Hospital

মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য ও চাঁদপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি এডভোকেট সেলিম মিয়া। মোহনপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে তিনি জনগণের ভালোবাসায় দিন যত গড়িয়ে যাচ্ছে ততই এগিয়ে যাচ্ছেন সামনের দিকে।

এডভোকেট সেলিম মিয়া ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণের অকুণ্ঠ সমর্থন, আন্তরিক ভালবাসা ও সহযোগিতা নিয়ে মানব সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করার মাধ্যমে মোহনপুর ইউনিয়নকে একটি আধুনিক ও মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলতে চান এবং সেই লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিয়েই এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি। মোহনপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডের সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলে জানা গেছে এডভোকেট সেলিম মিয়ার প্রশংসার কথা শুনা যাচ্ছে।

সম্প্রতি এ প্রতিবেদক এর সাথে একান্ত আলাপচারিতায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক এডভোকেট সেলিম মিয়া বলেন, আমি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বুকে ধারণ করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি এবং বিশ্বশান্তির মডেল বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার কারিগর বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক দর্শন ও উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাস করি। আমি আমার প্রিয় মোহনপুর ইউনিয়নবাসীর ভালবাসায় সিক্ত হয়ে ইউনিয়নবাসীর সেবায় নিয়োজিত থাকতে চাই, মানুষের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে কথা বলতে চাই এবং সাধারণ মানুষের সুখ-দুঃখের সঙ্গী হতে চাই। তিনি বলেন, এলাকার আপামর জনগণ ও মুরব্বীরা আমাকে নির্বাচন করতে উৎসাহ দিচ্ছেন। তাদের আশা পূরণের জন্য আমি আগামী ১৬ মার্চের ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে আপনাদের কাছে এসেছি।

তিনি আরও বলেন, মোহনপুর ইউনিয়নের অবহেলিত-অসহায় মানুষের দারিদ্র বিমোচনের লক্ষ্যে সমাজসেবামূলক কাজে নিজেকে আত্মনিয়োগ করেছি। ইউনিয়নবাসীর সমর্থন, সহযোগিতা ও ভোটে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হলে সকল অবহেলিত-অসহায় হতদরিদ্র মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে যাবো। বর্তমানে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়টি কার্যকর করে ইউনিয়নকে একটি আধুনিক ও মডেল ইউনিয়ন হিসেবে উপহার দিব।

এলাকায় শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সেবার উন্নয়ন, অপরাধ প্রবনতা রোধ, মাদকমুক্ত চোরাচালানমুক্ত ও জুয়া নিমূূল করণসহ নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধ, বাল্য বিবাহ বন্ধ এবং বহুবিবাহ প্রতিরোধ, সমাজের সহিংসতা বন্ধ, যুব সমাজকে মাদকদ্রব্য সেবনের হাত থেকে ফিরিয়ে আনার অব্যাহত প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবো। পাশাপশি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা, পিছিয়ে পড়া অবহেলিত জনগোষ্ঠীদের সার্বিক সহযোগিতা, সামাজিক উন্নয়ন, রাস্তার সংস্কার ও রাস্তা নির্মাণ, লেখাপড়ার উন্নত পরিবেশ তৈরী, খেলাধুলার ব্যবস্থাসহ বিভিন্ন পদক্ষেপের মাধ্যমে মোহনপুর ইউনিয়নকে একটি আধুনিক ও মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলবো ইনশাআল্লাহ। সর্বোপরি তিনি আরও বলেন, মোহনপুর ইউনিয়নবাসী আমাকে চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করলে ইউনিয়ন হবে একটি আধুনিক ও মডেল ইউনিয়ন। যেখানে থাকবে উন্নত নাগরিক সকল সুযোগ-সুবিধা।

এডভোকেট সেলিম মিয়া বলেন, আমি মানবতার সেবায় ব্যক্তিগত উদ্যোগে সাধ্যমতো অবহেলিত-অসহায় মানুষের সাহায্য সহযোগিতা করে আসছি। আমি বিশ্বাস করি ব্যাপক পরিসরে জনসেবায় আত্মনিয়োগ করতে জনপ্রতিনিধির বিকল্প নেই। বর্তমানে এলাকায় আমার ব্যাপক জনসমর্থন আছে স্বপ্নের সোনার বাংলা এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজে অংশীদার হতে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মোহনপুর ইউনিয়নবাসী আমাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করবেন বলে আমি বিশ্বাস করি। সবশেষে এডভোকেট সেলিম মিয়া ইউনিয়নবাসীর মঙ্গল কামনা করে নিজের জন্য দোয়া প্রার্থনা করেছেন। তিনি সকলের ভালবাসা ও সহযোগীতা নিয়েই এগিয়ে যেতে চান সামনের দিকে।

পাশাপাশি তিনি শঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, নির্বাচনে কালো টাকার ছড়াছড়ি ও অবৈধ অস্ত্রের ঝনঝনানি রোধে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

এছাড়া তোফাজ্জল হোসেন মেম্বার, ডা. হযরত আলী, ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম সরদার, আক্কাস আলী দেওয়ান, ইস্পাহানি সরকার, শাহজাহান মিয়া’সহ নেতৃবৃন্দ।