ঢাকা ০২:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মোহনপুর পর্যটনে পানিতে ডুবে ক্যামব্রিয়ান স্কুলের ১ ছাত্রের মৃত্যু : নিখোঁজ ১

মনিরুল ইসলাম মনির : মতলব উত্তর উপজেলার মেঘনা নদীর পাড়ে মোহনপুর পর্যটন লিঃ এ সাঁতার কাটতে গিয়ে পানিতে ডুবে শাহরিয়ার ইশতিয়াক শামস (১৬) নামে ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। একই সময় ঘুরতে আসা সুস্মিত সাহা (১৬) নামে আরো একজন পানিতে তলিয়ে গেলেও এ নিউজ লেখা পর্যন্ত নিখোঁজ রয়েছেন। তাকে উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরি টীম কাজ করছে।

Model Hospital

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে নারায়ণগঞ্জ ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা পিকনিকে আসলে এ ঘটনা ঘটে।

সংবাদ পেয়ে মতলব উত্তর উপজেলার মোহনপুর নৌ পুলিশ স্টেশন ও চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ডুবুরি দলের লিডার প্রণব বড়ুয়ার নেতৃত্বে সোহেল মিয়া ও হাসিবুর রহমান সহকর্মীরা মেঘনা নদীর ঘটনাস্থলে নিখোঁজ ছাত্রের সন্ধান করে। প্রিন্স কামাল-১ লঞ্চ যোগে ক্যামব্রিয়ান স্কুল এন্ড কলেজ, নারায়ণগঞ্জ শাখার ৭শতাধিন শিক্ষার্থী শিক্ষা সফরে আসেন মোহনপুর পর্যটন লি. এ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন মতলব উত্তর উপজেলার মোহনপুর পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক বাবুল পাল। তিনি বলেন, দুপুরে অনেক লোকজন ঘুরতে আসে মোহনপুর পর্যটন কেন্দ্রে। পর্যটন কেন্দ্রে নদীতে সাঁতার দেয়ার জন্য একটি জোন তৈরী করেছে কর্তৃপক্ষ। সেখানে অনেক শিশু-কিশোর পানিতে নেমেছে। এর মধ্যে ২ জন পানিতে তলিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন ১ জনকে উদ্ধার করতে পারলেও সুস্মিত সাহাকে উদ্ধার করতে পারেনি।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, গত বছর অক্টোবর মাসে এক ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে পানি ডুবে। এর আগেও ঢাকা ডেমরা থেকে পরিবারের সাথে ঘুরতে আসা এক শিশু একই স্থানে ডুবে মৃত্যু হয়। কিন্তু পর্যটন কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ এই বিষয়ে কোন সতর্কতা অবলম্বন করেনি। সাঁতার না জানা শিশুদের নামতে দেয়া কোনভাবে ঠিক হচ্ছে না।

এই বিষয়ে বক্তব্যের জন্য মোহনপুর পর্যটন লিমিটেড এর সিকিউরিটি ম্যানেজার সাদেকুর রহমান বলেন, আমরা সবসময়ই সতর্ক করে থাকি। সাঁতার না জানলে নদীতে নামতে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। আজকেও তাদেরকে হ্যান্ডমাইক দিয়ে নদীতে নামার জন্য নিষেধাজ্ঞা দিয়ে সতর্ক করা হয়েছে। কিন্তু তারা সিকিউরিটি গার্ডদের সাথে দুব্যর্বহার করে নদীতে নেমেছে। তবে সামনে দিয়ে যাতে এধরণের দুর্ঘটনা না ঘটে সেদিকে জোড় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ক্যামব্রিয়ান স্কুল এন্ড কলেজের সমন্বয়কারী আনিছুর রহমান আনিছ বলেন, আমরা ছাত্রদেরকে পানিতে নামতে নিষেধ করেছি। চারদিন আগে থেকেই তাদেরকে বলা হয়েছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় ঘটনাটি ঘটে গেল। আমরা খুবই দুঃখিত। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আইনগত ব্যবস্থা নিব কি না তা কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক সাহিদুল ইসলাম বলেন, ঘটনার সংবাদ পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে আসছি। নিখোঁজ ব্যক্তিকে উদ্ধারে চেষ্টা চলছে।

এদিকে নিহত ও নিখোঁজ ছাত্রের অভিভাবক ও স্বজনেরা ঘটনাস্থলে এসে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তারা দ্রুত নিখোঁজ সুস্মিত সাহাকে উদ্ধারের দাবী জানান।

দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশরাফুল হাসান ও মতলব উত্তর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মহিউদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ট্যাগস :

শাহরাস্তিতে মাদক মামলায় যুবক আটক

মোহনপুর পর্যটনে পানিতে ডুবে ক্যামব্রিয়ান স্কুলের ১ ছাত্রের মৃত্যু : নিখোঁজ ১

আপডেট সময় : ০৫:৫৭:৪৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

মনিরুল ইসলাম মনির : মতলব উত্তর উপজেলার মেঘনা নদীর পাড়ে মোহনপুর পর্যটন লিঃ এ সাঁতার কাটতে গিয়ে পানিতে ডুবে শাহরিয়ার ইশতিয়াক শামস (১৬) নামে ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। একই সময় ঘুরতে আসা সুস্মিত সাহা (১৬) নামে আরো একজন পানিতে তলিয়ে গেলেও এ নিউজ লেখা পর্যন্ত নিখোঁজ রয়েছেন। তাকে উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরি টীম কাজ করছে।

Model Hospital

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে নারায়ণগঞ্জ ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা পিকনিকে আসলে এ ঘটনা ঘটে।

সংবাদ পেয়ে মতলব উত্তর উপজেলার মোহনপুর নৌ পুলিশ স্টেশন ও চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ডুবুরি দলের লিডার প্রণব বড়ুয়ার নেতৃত্বে সোহেল মিয়া ও হাসিবুর রহমান সহকর্মীরা মেঘনা নদীর ঘটনাস্থলে নিখোঁজ ছাত্রের সন্ধান করে। প্রিন্স কামাল-১ লঞ্চ যোগে ক্যামব্রিয়ান স্কুল এন্ড কলেজ, নারায়ণগঞ্জ শাখার ৭শতাধিন শিক্ষার্থী শিক্ষা সফরে আসেন মোহনপুর পর্যটন লি. এ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন মতলব উত্তর উপজেলার মোহনপুর পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক বাবুল পাল। তিনি বলেন, দুপুরে অনেক লোকজন ঘুরতে আসে মোহনপুর পর্যটন কেন্দ্রে। পর্যটন কেন্দ্রে নদীতে সাঁতার দেয়ার জন্য একটি জোন তৈরী করেছে কর্তৃপক্ষ। সেখানে অনেক শিশু-কিশোর পানিতে নেমেছে। এর মধ্যে ২ জন পানিতে তলিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন ১ জনকে উদ্ধার করতে পারলেও সুস্মিত সাহাকে উদ্ধার করতে পারেনি।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, গত বছর অক্টোবর মাসে এক ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে পানি ডুবে। এর আগেও ঢাকা ডেমরা থেকে পরিবারের সাথে ঘুরতে আসা এক শিশু একই স্থানে ডুবে মৃত্যু হয়। কিন্তু পর্যটন কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ এই বিষয়ে কোন সতর্কতা অবলম্বন করেনি। সাঁতার না জানা শিশুদের নামতে দেয়া কোনভাবে ঠিক হচ্ছে না।

এই বিষয়ে বক্তব্যের জন্য মোহনপুর পর্যটন লিমিটেড এর সিকিউরিটি ম্যানেজার সাদেকুর রহমান বলেন, আমরা সবসময়ই সতর্ক করে থাকি। সাঁতার না জানলে নদীতে নামতে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। আজকেও তাদেরকে হ্যান্ডমাইক দিয়ে নদীতে নামার জন্য নিষেধাজ্ঞা দিয়ে সতর্ক করা হয়েছে। কিন্তু তারা সিকিউরিটি গার্ডদের সাথে দুব্যর্বহার করে নদীতে নেমেছে। তবে সামনে দিয়ে যাতে এধরণের দুর্ঘটনা না ঘটে সেদিকে জোড় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ক্যামব্রিয়ান স্কুল এন্ড কলেজের সমন্বয়কারী আনিছুর রহমান আনিছ বলেন, আমরা ছাত্রদেরকে পানিতে নামতে নিষেধ করেছি। চারদিন আগে থেকেই তাদেরকে বলা হয়েছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় ঘটনাটি ঘটে গেল। আমরা খুবই দুঃখিত। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আইনগত ব্যবস্থা নিব কি না তা কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক সাহিদুল ইসলাম বলেন, ঘটনার সংবাদ পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে আসছি। নিখোঁজ ব্যক্তিকে উদ্ধারে চেষ্টা চলছে।

এদিকে নিহত ও নিখোঁজ ছাত্রের অভিভাবক ও স্বজনেরা ঘটনাস্থলে এসে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তারা দ্রুত নিখোঁজ সুস্মিত সাহাকে উদ্ধারের দাবী জানান।

দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশরাফুল হাসান ও মতলব উত্তর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মহিউদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।