ঢাকা ০৭:৪৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অনলাইন জিডিতে সাধারন মানুষের ভোগান্তি, দায়সারা বক্তব্য দায়িত্বশীলদের !

এস এম ইকবাল : কখনো নেট সমস্যা, আবার কখনো সার্ভার ডাউন। এ দুইয়ের কারনে অনলাইনে জিডি (সাধারণ ডাইরি) করতে এসে চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে সাধারন মানুষদের। আগে সাধারন মানুষের জিডি করতে সর্বোচ্চ ২০ মিনিট সময় লাগলেও বর্তমানে তা করতে কতক্ষন সময় লাগবে তার কোন ইয়ত্তা নেই।

Model Hospital

জানাযায়, থানা পুলিশের চাপ কমানো এবং প্রযুক্তির ছোঁয়ায় পুলিশের সেবাপ্রত্যাশীদের ভোগান্তি কমাতে মূলত চালু করা হয় অনলাইন জিডি প্রক্রিয়া। তবে অনলাইন জিডি অ্যাপসে জিডি করার ক্ষেত্রে ভোগান্তি বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে সেবা প্রত্যাশীদের।

ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার ভুক্তভোগী সেবাগ্রহীতা ইয়াকুব হোসেন স্বপন জানান, দীর্ঘ ৫ ঘন্টা বসে থেকেও অনলাইন জনিত ত্রুটির কারণে জিডি করতে পারিনি।

উপজেলার সুবিদপুর পশ্চিম ইউনিয়নের রহিমা বেগম নামে আরেক ভুক্তভোগী জানান, ২২ জানুয়ারী সন্ধায় আমার বীমার কাগজ হারানো গিয়েছে মর্মে জরুরী ভিত্তিতে জিডি করতে এসে সন্ধা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত অপেক্ষা করেও সার্ভারের সমস্যা জনিত কারনে জিডি করতে না পেরে বাড়ি চলে যাই এবং ২৩ জানুয়ারী সন্ধায় পুনরায় এসে জিডি করতে সক্ষম হই।

তবে ভুক্তভোগীদের দাবি, অনলাইন জিডি প্রক্রিয়া একটা সফল উদ্যোগ। কিন্তু জিডি এন্ট্রির আগে কঠিন প্রক্রিয়ার কারনে অনলাইন জিডি করাটা এখন বিড়ম্বনায় পরিনত হয়েছে। এটা আরো সহজ করা উচিত।

ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল মান্নানের কাছে অনলাইন জিডির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কোন বক্তব্য দিতে রাজি হননি।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হাজীগঞ্জ-ফরিদগঞ্জ) সার্কেল পংকজ কুমার দে জানান, অনলাইন জিডি করতে কারো কোন সমস্যা হলে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ বা উর্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করার জন্য বলেন।

ট্যাগস :

অনলাইন জিডিতে সাধারন মানুষের ভোগান্তি, দায়সারা বক্তব্য দায়িত্বশীলদের !

আপডেট সময় : ০৩:৩৪:২১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৩

এস এম ইকবাল : কখনো নেট সমস্যা, আবার কখনো সার্ভার ডাউন। এ দুইয়ের কারনে অনলাইনে জিডি (সাধারণ ডাইরি) করতে এসে চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে সাধারন মানুষদের। আগে সাধারন মানুষের জিডি করতে সর্বোচ্চ ২০ মিনিট সময় লাগলেও বর্তমানে তা করতে কতক্ষন সময় লাগবে তার কোন ইয়ত্তা নেই।

Model Hospital

জানাযায়, থানা পুলিশের চাপ কমানো এবং প্রযুক্তির ছোঁয়ায় পুলিশের সেবাপ্রত্যাশীদের ভোগান্তি কমাতে মূলত চালু করা হয় অনলাইন জিডি প্রক্রিয়া। তবে অনলাইন জিডি অ্যাপসে জিডি করার ক্ষেত্রে ভোগান্তি বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে সেবা প্রত্যাশীদের।

ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার ভুক্তভোগী সেবাগ্রহীতা ইয়াকুব হোসেন স্বপন জানান, দীর্ঘ ৫ ঘন্টা বসে থেকেও অনলাইন জনিত ত্রুটির কারণে জিডি করতে পারিনি।

উপজেলার সুবিদপুর পশ্চিম ইউনিয়নের রহিমা বেগম নামে আরেক ভুক্তভোগী জানান, ২২ জানুয়ারী সন্ধায় আমার বীমার কাগজ হারানো গিয়েছে মর্মে জরুরী ভিত্তিতে জিডি করতে এসে সন্ধা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত অপেক্ষা করেও সার্ভারের সমস্যা জনিত কারনে জিডি করতে না পেরে বাড়ি চলে যাই এবং ২৩ জানুয়ারী সন্ধায় পুনরায় এসে জিডি করতে সক্ষম হই।

তবে ভুক্তভোগীদের দাবি, অনলাইন জিডি প্রক্রিয়া একটা সফল উদ্যোগ। কিন্তু জিডি এন্ট্রির আগে কঠিন প্রক্রিয়ার কারনে অনলাইন জিডি করাটা এখন বিড়ম্বনায় পরিনত হয়েছে। এটা আরো সহজ করা উচিত।

ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল মান্নানের কাছে অনলাইন জিডির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কোন বক্তব্য দিতে রাজি হননি।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হাজীগঞ্জ-ফরিদগঞ্জ) সার্কেল পংকজ কুমার দে জানান, অনলাইন জিডি করতে কারো কোন সমস্যা হলে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ বা উর্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করার জন্য বলেন।