ঢাকা ০৬:০৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদগঞ্জে ভূমি অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীর অনিয়মের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

এস এম, ইকবাল : চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে চাহিদা মোতাবেক অর্থ না দেয়ায় প্রভাবশালী প্রতিপক্ষের পক্ষে প্রথমে রিপোর্ট তৈরি করে সার্ভেয়ার। পরে ওই রিপোর্ট সহকারি কমিশনার (ভুমি) এ দায়িত্বে থাকা উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা তাসলিমুন নেছাও রিপোর্টটিকে সত্য বলে অবিহিত করে আদালতের কাছে পাঠায়।

Model Hospital

এমনই অভিযোগ এনে ফরিদগঞ্জ উপজেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত ভূমি কর্মকর্তা তাসলিমুন নেছা, সার্ভেয়ার মো. আবু বকর সিদ্দিক ও চেইন ম্যান জয়নাল আবদীনের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে প্রধানমন্ত্রী, জেলা প্রশাসক ও বিচার বিভাগের হস্তক্ষেপ কামনা করে সাংবাদ সম্মেলন করেছে উপজেলার রূপসা উত্তর ইউনিয়নের রুস্তুমপুর গ্রামের একটি অসহায় পরিবার।

১২ সেপ্টেম্বর সোমবার বিকেলে ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য মো. ফয়েজ আহমেদ মৃধা।

লিখিত বক্তব্যে ফয়েজ আহমেদ বলেন, বিজ্ঞ আদালত সম্পত্তিগত বিরোধের মামলা তদন্তের জন্য ফরিদগঞ্জ উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমিকে সরজমিন তদন্ত করে নালিশী সম্পত্তি প্রকৃত দখল ও প্রয়োজনীয় প্রতিবেদন পাঠানোর নির্দেশ দেয়। কিন্তু আমাদের প্রতিপক্ষ ফরিদগঞ্জের বাসিন্দা, ঢাকা মুগদা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন বাহার ও মোজাম্মেল হোসেন বাবুলগংরা প্রভাবশালী হওয়ায় ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তথা সহকারি কমিশনার (ভূমি) এর অতিরিক্ত দায়িত্বপালন করা তাসলিমুন নেছা, ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার মো. আবু বকর সিদ্দিক ও সহকারি জয়নাল আবদীন মিলে আমাদের জমি প্রতিপক্ষগণের দখলে রয়েছে বলে একটি মনগড়া প্রতিবেদন তৈরী করে গত ৪ সেপ্টেম্বর তারিখে আদালতে পাঠায়। যাহা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

প্রকৃতপক্ষে নালিশী ওই সম্পত্তি কোনদিন আমাদের প্রতিপক্ষরা দখলে ছিলেন না বর্তমানেও নেই। বেশ কয়েকবার ফরিদগঞ্জ উপজেলা ভূমি কর্মকর্তারা আমাদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকাদাবী করেছে। যা আমরা দিতে অপারগতা শিকার করায় তথা তাদের চাহিদামত টাকা না দেয়ায় তারা আমাদের নালিশী ভূমির বিষয়ে কথা বলতে দেয়নি। আমরা ফরিদগঞ্জ উপজেলা ভূমি অফিসের দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষের এই খামখেয়ালীপনা বিচার প্রার্থনা করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জেলা প্রশাসক ও বিচার বিভাগের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি এমকে মানিক পাঠানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবদুস ছোবহান লিটনের পরিচালনায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন প্রিন্ট এবং ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাসলিমুন নেছার কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমি এ বিষয়ে অবগত নই, তিনি আমার বিরুদ্ধে যেই অভিযোগ তুলেছেন তা সঠিক নয়।

তিনি আরো বলেন, বিষয়টি আমি খতিয়ে দেখছি, অভিযোগের সত্যতা পেলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। শুধু তাই নয়, আমাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের সত্যতা না মিললে, আমাদের মানহানী করায় তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

উদয়ন প্রিমিয়ার লীগ ফুটবল টুর্নামেন্ট ফাইনাল খেলা ও পুরস্কার বিতরণ সম্পূর্ণ

ফরিদগঞ্জে ভূমি অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীর অনিয়মের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

আপডেট সময় : ০১:৫২:০৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২

এস এম, ইকবাল : চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে চাহিদা মোতাবেক অর্থ না দেয়ায় প্রভাবশালী প্রতিপক্ষের পক্ষে প্রথমে রিপোর্ট তৈরি করে সার্ভেয়ার। পরে ওই রিপোর্ট সহকারি কমিশনার (ভুমি) এ দায়িত্বে থাকা উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা তাসলিমুন নেছাও রিপোর্টটিকে সত্য বলে অবিহিত করে আদালতের কাছে পাঠায়।

Model Hospital

এমনই অভিযোগ এনে ফরিদগঞ্জ উপজেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত ভূমি কর্মকর্তা তাসলিমুন নেছা, সার্ভেয়ার মো. আবু বকর সিদ্দিক ও চেইন ম্যান জয়নাল আবদীনের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে প্রধানমন্ত্রী, জেলা প্রশাসক ও বিচার বিভাগের হস্তক্ষেপ কামনা করে সাংবাদ সম্মেলন করেছে উপজেলার রূপসা উত্তর ইউনিয়নের রুস্তুমপুর গ্রামের একটি অসহায় পরিবার।

১২ সেপ্টেম্বর সোমবার বিকেলে ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য মো. ফয়েজ আহমেদ মৃধা।

লিখিত বক্তব্যে ফয়েজ আহমেদ বলেন, বিজ্ঞ আদালত সম্পত্তিগত বিরোধের মামলা তদন্তের জন্য ফরিদগঞ্জ উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমিকে সরজমিন তদন্ত করে নালিশী সম্পত্তি প্রকৃত দখল ও প্রয়োজনীয় প্রতিবেদন পাঠানোর নির্দেশ দেয়। কিন্তু আমাদের প্রতিপক্ষ ফরিদগঞ্জের বাসিন্দা, ঢাকা মুগদা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন বাহার ও মোজাম্মেল হোসেন বাবুলগংরা প্রভাবশালী হওয়ায় ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তথা সহকারি কমিশনার (ভূমি) এর অতিরিক্ত দায়িত্বপালন করা তাসলিমুন নেছা, ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার মো. আবু বকর সিদ্দিক ও সহকারি জয়নাল আবদীন মিলে আমাদের জমি প্রতিপক্ষগণের দখলে রয়েছে বলে একটি মনগড়া প্রতিবেদন তৈরী করে গত ৪ সেপ্টেম্বর তারিখে আদালতে পাঠায়। যাহা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

প্রকৃতপক্ষে নালিশী ওই সম্পত্তি কোনদিন আমাদের প্রতিপক্ষরা দখলে ছিলেন না বর্তমানেও নেই। বেশ কয়েকবার ফরিদগঞ্জ উপজেলা ভূমি কর্মকর্তারা আমাদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকাদাবী করেছে। যা আমরা দিতে অপারগতা শিকার করায় তথা তাদের চাহিদামত টাকা না দেয়ায় তারা আমাদের নালিশী ভূমির বিষয়ে কথা বলতে দেয়নি। আমরা ফরিদগঞ্জ উপজেলা ভূমি অফিসের দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষের এই খামখেয়ালীপনা বিচার প্রার্থনা করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জেলা প্রশাসক ও বিচার বিভাগের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি এমকে মানিক পাঠানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবদুস ছোবহান লিটনের পরিচালনায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন প্রিন্ট এবং ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাসলিমুন নেছার কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমি এ বিষয়ে অবগত নই, তিনি আমার বিরুদ্ধে যেই অভিযোগ তুলেছেন তা সঠিক নয়।

তিনি আরো বলেন, বিষয়টি আমি খতিয়ে দেখছি, অভিযোগের সত্যতা পেলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। শুধু তাই নয়, আমাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের সত্যতা না মিললে, আমাদের মানহানী করায় তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।